Ticker

6/recent/ticker-posts

Ads

গ্রীন কার্ড মানে কি? | গ্রিন কার্ড পাওয়ার উপায়? | ডিভি লটারি 2023 যোগ্য দেশ

Green Card details in Bangla


গ্রীন কার্ড হলো বিদেশী নাগরিকের মতো স্থায়ীভাবে বসবাস করার জন্য একটি প্রমাণ লিপি । মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অথবা ইউএসএ প্রতিবছর ডিভি লটারির মাধ্যমে 55 হাজারেরও বেশি গ্রীন কার্ড ইস্যু করে থাকে নাগরিকত্ব প্রদানের জন্য । (USA DV lottery details in Bangla)

 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গ্রীন কার্ডকে অনেকে আইনি স্থায়ী বাসিন্দা কার্ড বলে থাকে । গ্রীনকার্ড বলতে বুঝায় ন্যাচারালাইজেসন এর মাধ্যমে আমেরিকার নাগরিকত্ব লাভ করা । অর্থাৎ আমরা যখন কোন দেশে জন্মে থাকি তখন আমরা সেই দেশের নাগরিক বলে দাবি করতে পারি । (How to Green Card)


কিন্তু এছাড়াও গ্রীন কার্ড এর মাধ্যমে আমরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে না জন্মেও নাগরিকত্ব লাভ করতে পারবো । আপনি যদি একজন বাংলাদেশী হয়ে আমেরিকায় গিয়ে গ্রীন কার্ড পেয়ে যান তাহলে আপনি একত্রে দুইটি দেশের নাগরিক বলেই দাবি করতে পারবেন । একটি হলো জন্মসূত্রে এবং অন্যটি হলো গ্রীন কার্ড এর মাধ্যমে । ( USA Green Card details Bangla)


পাসপোর্ট এর ভিসা এবং গাড়ির লাইসেন্স যেমন একটি নির্দিষ্ট সময় পর পুনরায় পারমিট করে নিতে হয় ঠিক তেমনি গ্রীনকার্ডকেও প্রতি 10 বছর পর পর নবায়ন করে নিতে হবে । (আমেরিকার গ্রীন কার্ড কি)


 এদিকে গ্রীন কার্ড বা সবুজ কার্ড বলা হয় তার কারণ হলো গ্রীন কার্ডটি সবুজ কাগজের তৈরি । যদিও প্রথম দিকে এই কাগজটি রং হলুদ এবং গোলাপী ছিল কিন্তু পরবর্তীতে 2010 সালে স্থায়ীভাবে এটির নাম গ্রীন কার্ড রাখা হয় । ( আমেরিকার নাগরিক হওয়ার উপায়)


  গ্রিন কার্ড পাওয়া মানুষগুলো একটি দেশে পাঁচ বছর অবস্থান করার পর নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবে । তবে ভিসা এবং গ্রীন কার্ড এর মধ্যে একটি প্রধান পার্থক্য হচ্ছে কোন দেশে যাওয়ার জন্য আপনার কিসের প্রয়োজন হবে এবং সে দেশের নাগরিকত্ব লাভ করার জন্য আপনার প্রয়োজন হবে গ্রিনকার্ডের । (USA Green Card visa in Bangla)


গ্রীনকার্ড আপনাকে অন্য একটি দেশের স্থায়ী ভাবে কাজ করার পাশাপাশি সামাজিক সেবা গ্রহণের অনুমতি দিয়ে থাকে । তবে বিভিন্ন দেশের মানুষ ইউএসএ অথবা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চাকরি অথবা পড়াশোনা করতে চায় তাদের জন্য গ্রীনকার্ড বাধ্যতামূলক । (USA DV lottery details in Bangla)


আপনার কাছে যদি গ্রীনকার্ড না থাকে অথবা আপনি যদি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব লাভ করতে না পারেন তাহলে বিভিন্ন পেশার পাশাপাশি পড়াশোনাও করতে পারবেন না । আপনি যদি স্থায়ীভাবে নাগরিকত্ব লাভ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোন পেশা অথবা পড়াশোনা করতে চান তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম গ্রীন কার্ড এর প্রয়োজন হয় থাকবে । (Student Green Card in USA details)


গ্রীন কার্ড অর্জন করার জন্য কিছুটা সময় লাগলেও অর্জন করার পরেই স্থায়ীভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা হয়ে লাভ করা যাবে সে দেশের নাগরিকত্ব ।  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জন্ম নেওয়া অন্যান্য নাগরিকের মতো একজন গ্রীন কার্ড পাওয়া ব্যক্তিও বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা পেয়ে যাবে । (গ্রীন কার্ড কি? )


গ্রীন কার্ড মানে কি | গ্রিন কার্ড পাওয়ার উপায়? | ডিভি লটারি 2023 যোগ্য



গ্রীন কার্ড পাওয়ার উপায়


নাগরিকতা অর্জনের জন্য বেশ কয়েকটি উপায় রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম একটি উপায় হল লটারি বিজয় । ডিভি লটারি হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা পাওয়ার একটি মাধ্যম অপরদিকে গ্রিনকার্ড হলো যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব পাওয়ার একটি অনুমোদন পত্র । ( গ্রীন কার্ড পাওয়ার উপকারিতা )


ডিবি ভিসায় জয়ী হওয়াটা মানে আপনি আমেরিকা যাওয়ার জন্য সেই দেশের দূতাবাস থেকে ভিসা নিতে পারবেন অথবা সে দেশে যাওয়ার যোগ্যতা রাখেন । কিন্তু গ্রীন কার্ড পেলে আপনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকতা অর্জন করতে পারবেন । ( যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকতা অর্জনের উপায় )


ডিভি ভিসায় জয়ী হতে পারলে আমেরিকায় গিয়ে গ্রীনকার্ড লাভ করাটা কিছুটা সময়ের ব্যাপার । এটাও মনে রাখা জরুরী ডিভি ভিসায় জয়ী হয়ে যারা আমেরিকায় যেতে পারে আমেরিকান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হতে তাদেরকে গ্রীন কার্ড দেওয়া হয়ে থাকে ।  আরো সহজ ভাষায় বলতে গেলে যদি আপনি ডিভি বিজয়ী হতে পারেন তাহলেই কেবলমাত্র আপনি গ্রীন কার্ড পাবেন । ভিন্ন ভিন্ন দেশের লোকদের জন্য প্রতিবছর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র 50 হাজার গ্রীন কার্ড প্রস্তুত করে রাখেন । ( আমেরিকার গ্রীন কার্ড কার্যক্রম )



  গ্রীন কার্ড দেওয়ার জন্য তাদেরকে ডিভি লটারির মাধ্যমে সিলেক্ট করা থাকে । ডিভি লটারির জন্য পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে কোটি কোটি মানুষ অংশগ্রহণ করলেও তারা কেবল এদের মধ্য থেকে 50 হাজার লোককে ডিভি লটারি বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করে এবং এদেরকে স্থায়ীভাবে গ্রীন কার্ড দেওয়া হয়ে থাকে ।  গ্রীন কার্ড পাওয়ার জন্য এটি একটি সহজ উপায় হলেও এখানে ভাগ্যের পরীক্ষা দিয়ে ডিভি লটারিতে বিজয়ী হতে হয় । ( ডিভি লটারিতে বিজয়ী হওয়ার উপায় )


অনেককেই আবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকার শরণার্থী হিসেবে গ্রীন কার্ড প্রদান করে থাকে । আমেরিকায় ঘুরতে যাওয়ার ইচ্ছায় প্রায় প্রতিটা মানুষই ব্যাকুল হয়ে থাকে । তাদের মধ্যে কিছু কিছু মানুষকে আমেরিকান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গ্রীন কার্ড প্রদান করে থাকে । ( কারা ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণ করতে পারবে )


তবে এক্ষেত্রে আপনাকে অনেক প্রমান দিয়ে গ্রীন কার্ড অর্জন করতে হয় । গ্রীন কার্ডের জন্য আবেদন করতে হলে আপনাকে অবশ্যই উচ্চ শিক্ষিত হতে হবে শরণার্থী হিসেবে । এর পাশাপাশি আমেরিকা ছাড়াও আরও বিভিন্ন দেশে শরণার্থী হিসেবে ঘুরতে যাওয়ার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে অথবা পাসপোর্টে বিভিন্ন দেশে টুরিস্ট অথবা ঘুরতে যাওয়ার পারমিট থাকতে হবে ।         ( গ্রীন কার্ড পাওয়ার শর্ত সমূহ )



এসকল অভিজ্ঞতা যদি আপনার ভিতর থেকে থাকে তাহলে আপনি যেকোন দূতাবাস থেকেই আমেরিকা ভিসা পাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন এবং ভিসা পেলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গ্রীন কার্ড এবং পেয়ে যাবেন নাগরিকত্ব লাভ । ( আমেরিকান ভিসা পাওয়ার জন্য আবেদন )


মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ীভাবে বসবাস করে গ্রীনকার্ড অর্জনের জন্য আরও একটি অন্যতম উপায় হচ্ছে 
শিক্ষা । শিক্ষা অর্জনের জন্য বিভিন্ন মানুষ রয়েছে যারা আমেরিকা গিয়ে শিক্ষা অর্জনের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে । শিক্ষা অর্জনের জন্য আপনাকে সর্বপ্রথম দূতাবাস থেকে একটি আমেরিকান টুরিস্ট ভিসা বের করে নিতে হবে । ( টুরিস্ট ভিসা বের করার উপায় )


এক্ষেত্রে অবশ্যই তাদেরকে তথ্য দিতে হবে আপনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা অর্জন করতে চান । এই তথ্য ভিসা পাওয়ার আগেই তাদেরকে প্রদান করতে হবে দূতাবাসে গিয়ে । এগুলো দেওয়া কমপ্লিট হলে পেয়ে যাবেন স্টুডেন্ট 
ভিসা । ( ভিসার জন্য দূতাবাসে কিভাবে আবেদন করতে হয় )



স্টুডেন্ট ভিসায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা করার সুযোগ রয়েছে । সেখানে আপনি যখন কোন বিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করবেন ঠিক পরবর্তী সময় আপনি গ্রীন কার্ডের জন্য আবেদন করতে 
পারবেন । ( গ্রীন কার্ড এর জন্য আবেদন করার সঠিক নিয়ম )


প্রযুক্তিগতভাবে গ্রীনকার্ড লাভ করার জন্য আরো একটি সহজ উপায় হল কোন মার্কিন নাগরিককে বিয়ে করা । অনেক ডেটিং সাইট এবং বিবাহ সংস্থা রয়েছে যেখানে আপনি খুঁজে পেয়ে যাবেন এমন অনেককে যারা বিদেশীদেরকে বিয়ে করতে চায় । বিদেশিদেরকে বিয়ে করার মাধ্যমে আপনি ঐ দেশের নাগরিকত্ব এবং গ্রিন কার্ড দুটোই পেয়ে যাবেন । ( গ্রীন কার্ড এর মাধ্যমে কিভাবে নাগরিকত্ব লাভ করা যায় )



 তবে বৈবাহিক সূত্রে গ্রীনকার্ড অর্জনের জন্য বেশ কিছু অসুবিধা রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম একটি অসুবিধা হলো । বিয়ে করার পর দুই বছরের জন্য আপনি একটি অস্থায়ী গ্রিনকার্ড লাভ করবেন এবং বিবাহের দুই বছর পরে আপনাকে একটি স্থায়ী কার্ড প্রদান করা হবে ।   
( বিবাহের মাধ্যমে গ্রীন কার্ড অর্জন )
 

বিয়ের দুই বছরের মধ্যে যদি বিবাহটি ভেঙে যায় তাহলে কিন্তু দুই বছর পরবর্তীতে আপনাকে আর স্থায়ীভাবে গ্রীন কার্ড দেওয়া হবে না । অস্থায়ী গ্রীন কার্ডটি আপনাকে দুই বছরের জন্যই দেওয়া হবে দুই বছরে পর অস্থায়ী গ্রিন কার্ডটি কিন্তু আপনার জন্য গ্রহণযোগ্য নয় । ( অস্থায়ী গ্রীন কার্ডের মেয়াদ )

এছাড়াও আরও একটি সহজ পদ্ধতি রয়েছে গ্রীনকার্ড অর্জনের জন্য সেটি হচ্ছে আমেরিকায় অবস্থিত কোন নিকটাত্মীয়ের কাছ থেকে আমন্ত্রণ । আপনার যদি কোন আত্মীয় আমেরিকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করে থাকে তাহলে আপনি চাইলেই কিন্তু তার মাধ্যমে খুব সহজে একটি ফ্যামিলি ভিসা তুলতে পারবেন এবং তার মাধ্যম আমেরিকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করার আপনার জন্য ততটা কঠিন হবে না । 
 ( নিকটাত্মীয় মাধ্যমে গ্রীন কার্ড অর্জন )

ফ্যামিলি ভিসা তুলতে বেশি সময় লাগে না যার কারণে অনেকটা দ্রুতই আমেরিকান দূতাবাস থেকে ভিসা তৈরি করে নিতে পারবেন । তবে আমাদের মধ্যে সবার নিকট আত্মীয় আমেরিকায় না থাকার কারণে এই বিষয়টি কিন্তু সকলের জন্য গ্রহণযোগ্য নয় । এইবিষয়ে কেবল তারাই পারবে যাদের নিকটাত্মীয় আমেরিকায় স্থায়ী ভাবে বসবাস করছে । ( স্থায়ীভাবে বসবাস করার জন্যয গ্রিন কার্ড এর গুরুত্ব )



2023 সালে কোন কোন দেশ ডিভি লটারির জন্য আবেদন করতে পারবে না ?


লটারির মাধ্যমে আমেরিকার নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা জানিয়েছে আমেরিকান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃপক্ষ । ডিবি ভিসার মাধ্যমে 2023 সালে বিভিন্ন দেশ থেকে 55 হাজার লোককে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গ্রিন কার্ড প্রদান করা হবে । ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণ করতে পারবে না ভারত এবং বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর মোট 20 টি দেশ । 
( কোন কোন দেশ পারবে না ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণ করতে )


সর্বশেষ 2012 সাল পর্যন্ত আমেরিকান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গ্রিনকার্ডের জন্য অথবা ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণের জন্য বাংলাদেশকে সুযোগ দিয়েছিল । কিন্তু বিগত কয়েক বছর ধরেই ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণ করার জন্য আমেরিকান সরকার বাংলাদেশকে আওতাভুক্ত করেনি । ( ডিভি লটারির আওতাভুুুুক্ত নেই  বাংলাদেশ 2023 )



2023 সালে তাদের দেশে নাগরিকত্ব প্রদানের জন্য প্রতিবছরের মতো এবারও কর্মসূচি শুরু করেছে । এবারের ডিভি লটারি কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করতে পারবে না পৃথিবীর 20 টি দেশ । দেশগুলো হলো - (dv lottery 2022 status check)

১ / চীন

২ / কলম্বিয়া 

৩ / গুয়েতমালা

৪ / হাইতি

৫ / জামাইকা

৬ / মেক্সিকো

৭ / নাইজেরিয়া

৮ / পাকিস্তান 

৯ / ফিলিপাইন 

১০ / দক্ষিণ কোরিয়া

১১ / ভিয়েতনাম 

১২ / মিয়ানমার

১৩ / ইন্ডিয়া

১৪ / সালভাদর

১৫ / যুক্তরাজ্য

১৬ / হন্ডুরাস

১৭ / বাংলাদেশ

১৮ / ডোমিনিকান রিপাবলিক 

১৯ / কানাডা

২০ / ব্রাজিল 



ডিভি লটারির জন্য কোন ফি বরাদ্দ রাখা হয়েছে কিনা ?


প্রতিবছর আমেরিকার সরকার ডিভি লটারির কার্যক্রম চালু করে থাকে । এখানে একটি প্রশ্ন থেকে যায় আর সেটি হল তাদের এই ডিভি লটারি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করার জন্য কোন ফি বাধ্যতামূলক করা হয়েছে কিনা ? ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণ করার জন্য কোন ফি বরাদ্দ নেই , তবে আপনি যদি ডিভি লটারিতে জয় লাভ করেন তাহলে বিভিন্ন কার্যক্রমের জন্য টাকা খরচ করতে হবে । 
( ডিভি লটারি কার্যক্রম )


মেডিকেল করার জন্য খরচ হতে পারে 200 ডলার এবং সাক্ষাৎকারের জন্য আপনাকে প্রতিবারের জন্য 300 ডলার করে খরচ করতে হবে । লটারি পাওয়ার জন্য আপনাকে কেবল ভিসার জন্য অধিবাসী ফি প্রদান করতে হবে । এছাড়া আলাদাভাবে কোন কোন টাকা খরচ করার প্রয়োজন নেই । ( ডিভি লটারি ডাউন শিবং করার জন্য কোন টাকা খরচ করতে হবে কিনা )



ডিভি লটারির সুবিধা


মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ীভাবে নাগরিকত্ব লাভ করে বসবাস করার জন্য অনেকগুলো উপায় থাকলেও তার মধ্যে ডিভি লটারির উপায়টি অনেকটাই সহজ এবং কম খরচের । ( ডিভি লটারির সুবিধা )


একজন সাধারণ মানুষের পক্ষে উচ্চ শিক্ষা অর্জন করে অথবা টুরিস্ট ভিসা পাওয়া অনেকটা ভাগ্যের ব্যাপার এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অসম্ভব হয়ে পড়ে । এদের জন্যই ডিবি ভিসাকে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে । ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণের জন্য আমেরিকান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পারমিশন পাওয়া একটি দেশের প্রতিটি নাগরিক ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণ গ্রহণ করতে পারবে । ( ডিভি লটারির মাধ্যমে গ্রীন কার্ড অর্জন )



ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণের মাধ্যমে ডিভি লটারিতে জয়ী হয়ে যায় তাহলে সে ক্ষেত্রে আমেরিকা স্থায়ীভাবে বসবাস করা এবং গ্রিন কার্ড পাওয়া তার পক্ষে সহজ হয়ে পড়ে । ( গ্রীন কার্ড অর্জনের উপায় )


2023 সালে ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণ করতে পারবে না বাংলাদেশ


শেষবারের মতো 2012 সালে এশিয়ার ভিতরে অবস্থিত বাংলাদেশকে ডিভি লটারির অন্তর্ভুক্ত করেছিল আমেরিকান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃপক্ষ । কিন্তু বিগত কয়েক বছর ধরেই আমেরিকান ডিভি লটারির ভিসায় বাংলাদেশের নাম দেশটির সরকার কর্তৃপক্ষ নাকোচ করে দিয়েছে । ( ডিভি লটারি তালিকা বাংলাদেশ থাকছে কি না )



এমনকি 2023 সালেও ডিভি লটারি তালিকায় থাকছে না বাংলাদেশের নাম । অথচ আমরা বিভিন্ন প্লাটফর্ম অথবা গণমাধ্যমগুলোতে দেখতে পাই 2023 সালেও বাংলাদেশ ডিভি লটারিতে অংশগ্রহণ করতে পারবে । অনেক প্রতারক চক্র রয়েছে যারা এই বিষয়গুলোকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে হাইলাইট করে মানুষের কাছ থেকে টাকা নিয়ে চলে যায় । ( অস্থায়ী গ্রীন কার্ডের মেয়াদ )


এই ধরনের প্রতারক চক্র থেকে আমাদের সবাইকে সাবধানে থাকতে হবে ।  মেইল অথবা অন্য কোন মাধ্যমে ডিভি লটারির ফি চাইলে সর্বদা এর থেকে বিরত থাকুন । ( প্রতারক হতে কিভাবে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে )

আশা করি পোস্টটি আপনাদেরকে ডিভি লটারি অথবা গ্রীন কার্ড বিষয়ে সঠিক ধারণা দিতে পেরেছে । এশিয়ার মধ্যে অবস্থিত বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশগুলোকে কখন ডিভি লটারি এর আওতায় আনা হবে সে বিষয়ে জানিয়ে দেওয়া হবে পরবর্তী সময়ে অন্য একাটি আর্টিকেল এর মাধ্যমে । ( USA DV lottery details in Bangla )


ডিভি লটারি কি? ডিভি লটারি কিভাবে পাওয়া যায়? বিস্তারিত জানতে হলে এখানে ক্লিক করে দেখে নিন ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ