Ticker

6/recent/ticker-posts

Ads

শিক্ষাগত যোগ্যতা ছাড়াই Meta force থেকে প্রতিদিন ৫০০০ টাকা-Meta Force Income full plan A to Z

অনলাইনে অনেক কোম্পানি রয়েছে যেখান থেকে আপনারা চাইলে ইনকাম করতে পারবেন । তবে বেশ কিছু কোম্পানি রয়েছে যেগুলো তাদের বিজনেস শুরু করার আগেই চলে যায় বিভিন্ন মানুষের টাকা হাতিয়ে । তবে এটা কিন্তু প্রতিটা কোম্পানির ক্ষেত্রে নয় , এর মধ্যে কিছু কিছু কোম্পানি রয়েছে যেগুলো তাদের ফিউচার প্ল্যানগুলো মানুষের সম্মুখে তুলে ধরে এবং বিজনেস শুরু করে । অনেক কোম্পানি রয়েছে যেখানে কিন্তু আমরা বিশ্বস্ততার সাথে নিয়ম মেনে কাজ করে 5 লক্ষ্য বা 10 লক্ষ কিংবা এরও বেশি মানুষ ইনকাম করতে পারবো । তবে কোন কোম্পানিটি মার্কেটে এসে তাদের কার্যক্রম শুরু করবে এবং কোন কোম্পানিগুলো স্ক্যাম করে পালিয়ে যাবে সেটা আগে থেকে নির্দিষ্ট করে বলা কিন্তু কঠিন । আপনাদেরকে বোঝানোর জন্য একটি সহজ উদাহরণ তুলে ধরি আর সেটি হল 2013 সালে আমাদের মাঝে যখন ইথেরিয়াম এসেছিল তখন কিন্তু আমরা এই কয়েনটির ভ্যালু ফিউচারে কত হবে সেটা কিন্তু জানতাম না । আর এই বর্তমান সময়ে ডিসেন্ট্রালাইজ ব্লগ চেইন প্ল্যাটফর্ম গুলোর মধ্যে এর অবস্থান বিটকয়েনের পরে রয়েছে । এখন আপনারা জিজ্ঞেস করতে পারেন যেহেতু কোম্পানিগুলো দেখে আগে কিছুই বলা যাবে না তাহলে কোম্পানিগুলোর বিশ্বস্ততা আমরা কিভাবে যাচাই করবো ? এটা কিন্তু একটি যুক্তিসঙ্গত প্রশ্ন তার উত্তর হল বেশ কিছু কোম্পানির রয়েছে যেগুলো বিভিন্ন মানুষের ব্যক্তি মালিকানাধীন অবস্থায় থাকে তার কারণ হলো সেগুলোতে মানুষ যখন ইনভেস্ট করবে তাহলে সেগুলো কিন্তু সিকিউরেটেড কোম্পানি নয় কারো মালিকানাধীন অবস্থায় রয়েছে আর সে যদি সেই টাকাগুলো নিয়ে পালিয়ে যায় এমনটা কিন্তু অনেক কোম্পানির ক্ষেত্রেই হয়েছে । আর সেজন্যই কিন্তু সাধারণ মানুষ বিভিন্ন বিভিন্ন কোম্পানিগুলোতে ইনভেস্ট করার নাম শুনলেই অনেকটা চমকে যায় সেখানে কাজ করার কথা তো দূরের কথা । যেটা আপনারা তামিল DJ ছবির ভিতরেও দেখতে পাবেন । তবে প্রতিটা কোম্পানির ক্ষেত্রে কিন্তু আমরা এরকমটা দেখতে পাই না । তার কারণ হলো বর্তমান সময়ে আমরা বেশকিছু কোম্পানি দেখতে পেয়ে যায় যেগুলো বিশ্বস্ততার সাথে বিজনেস করে যাচ্ছে এবং সেখান থেকে মানুষ লাখ লাখ টাকা বা হাজার হাজার ডলার ইনকাম করে নিচ্ছে । কিছু কিছু কোম্পানি রয়েছে যেগুলোতে আস্থা এবং বিশ্বস্ততার সাথে কাজ করে ইনকাম করা যায় । কোম্পানিগুলো ডিসেন্ট্রালাইজ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে সকলের কাছে পরিচিতি লাভ করতে পারে । ডিসেন্ট্রালাইজ কোম্পানি বলতে বোঝায় যে কোম্পানিগুলো অধিক সিকিউরিটেড বা এই কোম্পানিগুলো স্ক্যাম করার কোন সম্ভাবনা নেই । কারণ এই কোম্পানিগুলোতে কারো ব্যক্তিগতভাবে হস্তক্ষেপ থাকে না । আর আজকে আপনাদের মাঝে ডিসেন্ট্রালাইজ যে কোম্পানিটি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে সেই কোম্পানিটির নাম হল মেটাফোর্স কোম্পানি ( Meta - Force )। এটি একটি ডিসেন্ট্রালাইজ ব্লগচেইন প্ল্যাটফর্ম । আর যে কারণে বলা যেতে পারে এই কোম্পানিটির ব্যক্তি মালিকানাধীন কারো কাছে নেই , এই কোম্পানিটি এখন সম্পূর্ণ ব্লগচেইন এর আওতায় রয়েছে । এখানে কিন্তু আমরা সম্পূর্ণ বিশ্বস্থতা এবং আস্থা রেখে কাজ চালিয়ে যেতে পারবো । এই কোম্পানিটি সম্পর্কে আরো বিস্তারিত আলোচনা আর্টিকেলের নিচে তুলে ধরা হলো আর সেগুলো জানার জন্য সম্পূর্ণ আর্টিকেল জুড়ে থাকতে পারেন । ( meta force crypto )







মেটাফোর্স কি ?


মেটা-ফোর্স হলো একটি ডিসেন্ট্রালাইজ প্ল্যাটফর্ম এবং যেটা মূলত ব্লগ চেইন এর অধীনে চলে । বিভিন্ন ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানী রয়েছে যেখানে ইনভেস্ট করে ইনকাম করতে অনেকেই দ্বিধাবোধ করে থাকি তার কারণ হলো কোম্পানিগুলো যদি সেই টাকাগুলো মেরে চলে যায় । এমনটা কিন্তু আমরা দেখেছি বিভিন্ন কোম্পানির  ক্ষেত্রে তবে সবগুলো কোম্পানি যে এরকম তেমনটা কিন্তু নয় । ডিসেন্ট্রালাইজ ব্লগ চেইন এর অধীনে যে কোম্পানিগুলো রয়েছে সেখান থেকে মানুষ লক্ষ লক্ষ টাকার উপরে ইনকাম করে যাচ্ছে আবার আগামীতেও অনেকে করবে । মেটাফোর্স কোম্পানিটি যেহেতু ডিসেন্ট্রালাইজ একটি কোম্পানি সে ক্ষেত্রে এখানে কাজ করার অনেকটা আকুলতা আমাদের অনেকের মধ্যেই জাগতে পারে । ডিসেন্ট্রালাইজ কোম্পানি বলতে বোঝায় যে কোম্পানিগুলোর সিকিউরিটি সিস্টেম হাই লেভেলের এগুলোকে কখনো হ্যাক করা যায় না । আর এই কারণে কিন্তু আমরা মেটাফোর্স কোম্পানিটিতে আস্থা রেখে ইনভেস্ট করে ইনকাম করা যেতে পারে । মেটাফোর্স কোম্পানিটি রাশিয়ান নাগরিক মিস্টার লারু তৈরি করেছেন এবং মিস্টার লারুর কথা শুনে আপনাদের অনেকের কিন্তু ফরসেজ ( Forsage ) নেটওয়ার্কের কথা মনে পড়ে গেছে । তো ফরসেজ ( Forsage ) কোম্পানিটি সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা লাভ করার জন্য এবং কোম্পানিটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য এখানে ক্লিক করে জেনে নিতে পারেন । তো যাই হোক মেটাফোর্স কোম্পানিটি  মিস্টার লারু তৈরি করেছেন এবং এছাড়াও তিনি এই ধরনের আরও তিনটি প্রজেক্ট তৈরি করে সেগুলোকে ব্লক চেইনের আওতায় দিয়ে দিয়েছেন । এখন আপনাদের মনে কিন্তু প্রশ্ন থাকতে পারে সেটি হল মিস্টার লারু এই কোম্পানিটিকে ব্লক চেইন এর অধীনে দিয়ে দিলো তাহলে এক্ষেত্রে তার লাভ কি ? অবশ্যই তার লাভ রয়েছে আর এমনিতেও কারো লাভ ছাড়া কেউ কিছু করে না এটা তো আমরা সবাই জানি । তো যাই হোক মেটা-ফোর্স মূলত নেটওয়ার্কিং সিস্টেমে কাজ করে থাকে এবং এখানে তিনি কোম্পানি টিকে ব্লক চেইন এর আওতায় দিয়েছেন ঠিকই কিন্তু সে কিন্তু এই কোম্পানিটির টপ লিডার তার কারণ হলো তিনি এই মেটা ফোর্স কোম্পানিটিতে সর্বপ্রথম জয়েন হয়েছেন এক্ষেত্রে পরবর্তীতে যারা জয়েন হবে তাদের সকলের কাছ থেকে সে কমিশন লাভ করতে থাকবে সারা জীবন । আরো একটি জিনিস আপনাদেরকে সহজ ভাষায় বুঝানোর জন্য আবারো বলে রাখি মেটাফোর্স কোম্পানিটি ডিসেন্ট্রালাইজ প্ল্যাটফর্মের আওতায় রয়েছে যার কারণে এখানে 100% বিশ্বাস যোগ্যতা রেখে কাজ করা যাবে আর এই কোম্পানিটিকে ধ্বংস করা সম্ভব নয় । এই কোম্পানিটি যেহেতু ব্লগ চেইনের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত সেখানে কোম্পানিটিতে আমরা নিশ্চিন্তে ইনভেস্ট করে ইনকাম করে নেওয়া যেতে পারে তবে ইনভেস্ট করার বিষয়টি নিজ নিজ দায়িত্বে করাই ভালো । তার কারণ হলো টাকা এবং বুদ্ধি যখন আপনার সেখানে উদ্যোগ নেওয়ার অধিকারও আপনার । আশা করি বিষয়টি আপনারা পরিষ্কারভাবে বুঝতে পেরেছেন । ( মেটা-ফোর্স কি ? )


মেটাফোর্স কোম্পানির ফুল ইনকাম প্ল্যান কি ?


এবার আপনাদের মাঝে আলোচনা করবো মেটা ফোর্স কোম্পানি থেকে কিভাবে ইনকাম করা যাবে ? ফরসেজ কোম্পানি থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায় সে বিষয়গুলো কিন্তু আমরা ইতিপূর্বেই জানতে পেরেছি । আর ঠিক একই ভাবে ফরসেজ কোম্পানির মতো মেটা ফোর্স কোম্পানিতে আমরা তিন ভাবে ইনকাম করে নিতে পারব । আর সেই তিনটি প্রোসেস আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করা হবে সেখান থেকে আপনারা খুব সহজেই জানতে পারবেন মেটা ফোর্স কোম্পানি থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায় এই বিষয়টি । ( meta force earning )

1 / Active Upline Income কি ?

2 / Active Downline Income কি ?

3 / Active Cross Income কি ?


Active Upline Income


মেটা ফোর্স কোম্পানি থেকে ইনকাম করার জন্য প্রথম যে ধাপটি রয়েছে সেটি হলো একটিভ আপলাইন ইনকাম । একটিভ আপলাইন থেকে আপনারা কিভাবে ইনকাম করতে পারবেন সে বিষয়টিকে আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করা হলো । Digital Bangla 360 কোম্পানির বিশ্বব্যাপি ইউটিউব , ইনস্টাগ্রাম , ফেসবুক এবং টিকটক সহ বিভিন্ন গণমাধ্যম এক বিশাল কমিউনিটি রয়েছে । Digital Bangla 360 কোম্পানিটি থেকে প্রতিদিন এই কোম্পানিটির রেফার লিংক ব্যবহার করে অনেক মানুষ মেটা ফোর্স কোম্পানিতে জয়েন হচ্ছে বা আগামীতেও হবে । তো এখানে বিশাল কমিউনিটি থাকার কারণে আপনারা বেশি বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন । উদাহরণস্বরূপ ধরুন মেটা ফোর্স কোম্পানিটে আজকে আপনি জয়েন হলেন এখন যারা গতকাল এই কোম্পানিটিতে জয়েন হয়েছিল তারা সবাই কিন্তু একটি কমিশন পেয়ে যাবে । আবার আগামীকাল যারা জয়েন হবে এই কোম্পানিটিতে তাদের জয়েন হওয়ার বিনিময়ে আপনিও কিন্তু কমিশন পেয়ে যাবেন । এটাই মূলত একটিভ আপলাইন ইনকাম । আর এভাবে যতদিন মেটা ফোর্স কোম্পানিটিতে মানুষ জয়েন হতে থাকবে সে ক্ষেত্রে আপনিও কমিশন পেয়ে যাবেন লাইফটাইম । ( Active Upline Income কি ? )


Active Downline Income


মেটাফোর্স কোম্পানি থেকে ইনকাম করার পরবর্তী যে ধাপটি রয়েছে সেটি হলো Active Downline Income । আপনাদের মনে এখন একটি প্রশ্ন জাগতে পারে  সেটি হল Active Downline Income কি ? এই বিষয়টি বোঝানোর জন্য আপনাদের কাছে এই বিষয়টিকে সহজ ভাবে তুলে ধরা হলো , Digital Bangla 360 কোম্পানির রেফার লিংক ব্যবহার করে যারা মেটাফোর্স কোম্পানিতে জয়েন হবে সে ক্ষেত্রে কিন্তু কোম্পানিতে বা টিমে সকলেই Active Downline Income করে যাবে । এছাড়াও মেটা ফোর্স কোম্পানিতে আপনারা যখন জয়েন হবেন তখন আপনাদের একটি রেফার লিংক থাকবে আর সেটির মাধ্যমে যত মানুষ আপনারা জয়েন করাবেন তত বেশি Active Downline Income করে যেতে পারবেন । অর্থাৎ আপনার রেফার লিংক ব্যবহার করে যদি কেউ মেটাফোর্স কোম্পানিতে জয়েন করে তাহলে আপনার যে ইনকাম হবে সেটাই মূলত Active Downline Income । আশা করি আপনারা বিষয়টিকে ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন । ( Active Downline Income কি ? )


Active Cross Income


মেটা ফোর্স কোম্পানি থেকে ইনকাম করার আরো একটি জনপ্রিয় মাধ্যম রয়েছে আর সেটি হল Active Cross Income । ইনকাম করার এই মাধ্যমটিকে অনেকটা লটারির মতো বলা যেতে পারে । আপনাদেরকে সহজ ভাবে বোঝানোর জন্য একটি উদাহরণ দেওয়া হলো ছোটবেলায় আমরা যখন লটারি ধরতাম তখন কিন্তু সবার মধ্য থেকে একজন বিজয়ী হতো কিন্তু আগে থেকে কিন্তু বলা অনেক কঠিন ছিল আসলে কে বিজয়ী হবে । ঠিক তেমনি মেটা-ফোর্স Cross কমিশনটি কোম্পানির মধ্যে কারা পাবে সেটা আগে থেকে বলা কিন্তু কঠিন । মেটা-ফোর্স কোম্পানিটিতে নির্দিষ্ট পরিমাণ কিছু Cross কমিশন থাকে আর সেগুলো কারা পাবে সেটা নির্দিষ্ট করে বলা অনেকটা অসম্ভব । Cross কমিশনটি যারা একটিভ আপলাইন রয়েছে তাদের কাছেও যেতে পারে আবার যারা একটিভ ডাউনলাইন রয়েছে তাদের কাছেও যেতে পারে । অর্থাৎ এই কমিশনটি কোম্পানিতে থাকা এবং টিমে থাকা যে কেউ পেতে পারে । এছাড়াও এখানে আপনারা আরো বেশ কিছু ভাবে ইনকাম করতে পারবেন প্রথমতা আপনার একাউন্টে লেবেল যদি 6 লেভেল কিংবা আরো উপরে থাকে তাহলে প্রতি মাসে মাসিক স্যালারি পেয়ে যাবেন এই কোম্পানিটি থেকে লাইফ টাইম । এছাড়াও এখানে আপনার লেবেল যদি 7 লেভেলর উপরে হয় তাহলে কোম্পানির পক্ষ থেকে ফ্রিতে NFT পেয়ে যাবেন। ( Active Cross Income কি ? )


মেটা ফোর্স কোম্পানি থেকে কত টাকা ইনকাম করা যাবে ?


মেটা-ফোর্স কাজগুলো করার জন্য আপনাদের একটি কোম্পানি বা টিমে জয়েন হতে হবে । তোরে ক্ষেত্রে আপনি যে টিমে জয়েন হবেন সেই টিমে কমিউনিটি ভালো বা জনসংখ্যা যত বেশি হবে আপনার ইনকাম কিন্তু তত বেশি হবে । উদাহরণস্বরূপ বলা যেতে পারে Digital Bangla 360 কোম্পানীটিতে বিশাল জনসংখ্যা রয়েছে সেখান থেকে প্রতিদিন 15 জন বা 20 জন বা তারও বেশি জয়েন হয় তাহলে এই কোম্পানিটি আস্তে আস্তে অনেকটা বড় হবে এবং ব্যাপক প্রসারতা বাড়বে একটা সময় । আপনারা যদি এই কোম্পানিটির মাধ্যমে জয়েন হন তাহলে কিন্তু অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন মূল কথা হল আপনার কোম্পানিটিতে মানুষ যত বেশি জয়েন হবে আপনারা তত বেশি টাকা বা ডলার ইনকাম করতে পারবেন । ধরুন কোম্পানিটিতে আপনি আজকে জয়েন করলেন আর পরবর্তী যে সময়গুলোতে যে মানুষগুলো এই কোম্পানিতে জয়েন হবে তাদের সকলের জয়েন হওয়ার বিনিময়ে আপনারা কিন্তু সারাজীবন ইনকাম করতে পারবেন কোন কাজ করতে হবে না । তবে চেষ্টা করবেন কমপক্ষে দুইজন একটিভ রেফার করতে , তাহলে তারাও যখন রেফার করবে তাহলে সেখান থেকেও বাড়তি ইনকাম করতে পারবেন। এছাড়াও আরো একটি মজার বিষয় হচ্ছে এই কোম্পানিটির বা মেটা-ফোর্স কোম্পানিটির যে নিজস্ব কয়েন রয়েছে সেটি এখন পর্যন্ত লিস্টিং হয়নি তবে যখন লিস্টিং হয়ে যাবে তখন কিন্তু আমরা এখান থেকে অনেক অনেক টাকা ইনকাম করে নিতে পারব । এই কয়েনটা পাওয়া যাবে এক্সট্রা তবে অন্যান্য সকল ইনকামগুলো কিন্তু চলবে আজীবন । যেহেতু মেটা ফোর্স একটি ডিসেন্টালাইজ প্ল্যাটফর্ম তো এখানে আমরা ইনভেস্ট করে কাজ করতে পারি তবে সেটা নিজ দায়িত্বে করাই ভালো । এখানে আপনারা যত বেশি স্লট কিনে রাখবেন তত বেশি কিন্তু ইনকাম করে নিতে পারবেন যেমনটা আমরা দেখেছিলাম ফরসেজ কোম্পানির ক্ষেত্রে । মেটা ফোর্স কোম্পানিতে আপনাদের যা ইনকাম হবে সেগুলো আপনাদেরকে ম্যানুয়াল ভাবে রিকুয়েস্ট করতে হবে না অটোমেটিকলি যা ইনকাম হবে তা আপনাদের ওয়ালেটে চলে আসবে এটা কিন্তু একটি ভালো দিক । মেটাফোর্স কোম্পানিটির মাধ্যমে মিস্টার লারুর উদ্যোগে আশা করা যায় আমরা এখান থেকে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারব ।



মেটা ফোর্স অ্যাকাউন্ট কিভাবে তৈরি করতে হবে ?


মেটাফোর্স অ্যাকাউন্টটি তৈরি করার জন্য বেশ কিছু নিয়মাবলী রয়েছে আর সেগুলোকে হয়তো এখানে লিখে দেওয়ার মাধ্যমে আপনাদের বোঝার অনেকটা সমস্যা হতে পারে । আপনাদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে মেটাফোর্স কোম্পানিটিতে কিভাবে সঠিক নিয়মে একাউন্ট তৈরি করা যাবে সেই বিষয়গুলোর উপর ভিত্তি করে একটি ভিডিও মেক বা তৈরি করা হয়েছে । সেই ভিডিওটি দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন এবং এখানে ক্লিক করার সাথে সাথে আপনাকে ইউটিউবে নিয়ে যাওয়া হবে সেখান থেকে আপনারা ভিডিওটিকে দেখতে পেয়ে যাবেন এবং সেই ভিডিওর ডেসক্রিপশন বক্সে একাউন্ট তৈরি করার রেফার লিংক দেখতে পেয়ে যাবেন । ওই ভিডিওটি দেখে আপনারা সঠিক নিয়মে মেটা-ফোর্স অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিন । ( How to Create Meta-Force Account ? )




মেটা-ফোর্স কোম্পানিটি সম্পর্কে আপনারা পূর্ণাঙ্গ একটি ধারণা পেয়েছেন এখানে কিভাবে ইনকাম করা যাবে এবং কিভাবে একাউন্ট তৈরি করা যাবে । যেহেতু এটি একটি ইনভেস্ট কোম্পানি সেহেতু এখানে ইনভেস্ট করার পূর্বে আপনারা এই কোম্পানিটি সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে বুঝে নিবেন । এরপরে যদি আপনাদের কাছে মনে হয় যে কোম্পানিতে ইনভেস্ট করে অনেক টাকা ইনকাম করা যাবে বা কোম্পানিটি সম্পর্কে বিশ্বস্ততা অর্জন হয় তাহলে আপনারা এখানে আপনাদের নিজ নিজ ইচ্ছায় ইনভেস্ট করতে পারেন । আর যদি মনে হয় এখানে ইনভেস্ট করে কোন ফায়দা নেই বা লাভ হবে না তাহলে আপনারা নাও করতে পারেন সেটা আপনাদের ব্যক্তিগত ব্যাপারমেটা-ফোর্স কোম্পানিটি সম্পর্কে আপনাদের ব্যক্তিগত কি ধারণা রয়েছে সেটা কিন্তু আমাদেরকে জানাতে ভুলবেন না । 

Forsage কোম্পানি থেকে ৯৯ লাখ টাকারও বেশি ইনকাম করতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আর্টিকেলটি করুন

Post a Comment

0 Comments