Ticker

6/recent/ticker-posts

Ads

Satoshi mining app par month $1200 Earn | BTCs কি? | মোবাইল দিয়ে প্রতিমাসে ১০০০০০ টাকা ফ্রিতে ইনকাম

 how to earn 1 bitcoin per day without investment



চলমান পৃথিবীতে এখন যেন অনলাইনের এই দুনিয়া এ মনটা অনেকটাই বলা যেতে পারে কেন বললাম কথাটি আপনারা যারা অনলাইনে ইনকাম করার জন্য প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে যাচ্ছেন কিংবা টাকা ইনকাম করে যাচ্ছেন তারা ভালই বুঝতে পেরেছেন আর যারা এ বিষয়ে এখনও নতুন তারা হয়তো বা বিষয়টি বুঝতে পারেননি আর না বোঝাটাই কিন্তু স্বাভাবিক তবে আপনি যদি পুরো আর্টিকেলটি পড়েন তাহলে বুঝতে পারবেন ইনশাআল্লাহ। (satoshi mining app china কেমনে ইনকাম)


একটা সময় ছিল মানুষ শুধুমাত্র অনলাইন থেকে ইনকাম করার ক্ষেত্রে ইউটিউব অথবা ফেসবুক এই ধরনের কোম্পানিগুলোকে বুঝে থাকতো তবে এখন সময় পাল্টেছে এখন আর শুধু ইউটিউব কিংবা ফেসবুকের মতো বড়-বড় ইনকাম কোম্পানির গুলোর উপর নির্ভর করতে হয় না এখন চলে এসেছে অনেক নামিদামি আরও একটি ইনকাম সাইট জেটি থেকে মানুষ বিভিন্ন দেশ থেকে হিউজ পরিমাণে অর্থ উপার্জন করে নিচ্ছে ।

আজকে আপনাদের একটু ভিন্ন রকমের অনলাইন ইনকাম ওয়েবসাইটের সাথে কিংবা অ্যাপ্লিকেশন এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব যেখানে কাজ করলে আপনারা হিউজ পরিমান অর্থ উপার্জন করতে পারবেন হাতে থাকা স্মার্টফোনটি দিয়ে হোক সেটা অ্যান্ড্রয়েড কিংবা আইফোন তাতে কোন সমস্যা নেই হাতে একটি স্মার্টফোন থাকলেই হবে আর তাতে একটি ইন্টারনেট কানেকশনে ব্যবস্থা যদি থাকে তাহলে ইনকাম করা আর কে ঠেকায়? । (BTCs থেকে ইনকাম)

আশ্চর্য মনে হলেও এটাই সত্যি হাতে থাকা স্মার্টফোনটি দিয়ে এখন ইনকাম হবে প্রতিদিন হাজার হাজার কিংবা লক্ষ টাকার উপরে এটি শুনে হয়ত বা অনেকের চোখ কপালে উঠে যেতে পারে আসলে অবাক হওয়ার কিছু নেই কারণ অনলাইনের এই দুনিয়ায় অনেক কিছুই সম্ভব আবার কিছুই সম্ভব না।


আজকে আপনাদের সামনে যে ওয়েবসাইটটি কিংবা অ্যাপ্লিকেশনটির রিভিউ নিয়ে এলাম সেখানে আপনারা মাল্টিপল ভাবে ইনকাম করতে পারবেন অর্থাৎ এখানে আপনারা অনেক রকম ভাবে কাজ করতে পারবেন তো বুঝতেই পারতেছেন যারা নতুন রয়েছেন কিংবা যারা অভিজ্ঞ রয়েছেন সকলের জন্যই আজকের আর্টিকেলটি খুবই ইনপরটেন তাই ধৈর্য নিয়ে পুরো আর্টিকেলটি পড়ার অনুরোধ রইল তাতে উপকার আপনারই হবে।


জী বন্ধুরা আপনারা হয়তোবা অনেকেই বিষয়টি অনুমান করতে পেরেছেন কারণ টাইটেল ও থামনেল দেখে এই সাইটটি কিংবা এই কোম্পানি নিয়ে কিছু সংক্ষিপ্ত কথা যদিও এখনও আপনারা সম্পূর্ণ বিষয়টি জানতে পারবেন আশা করি অভিজ্ঞরা বুঝতে পেরেছেন নতুনরা অবাক হয়েছেন আজকে আপনাদের জানাব satoshi app অ্যাপ্লিকেশন থেকে কিভাবে হিউজ পরিমান টাকা উপার্জন করবেন এই বিষয়ে এটুজেট অথবা আপনারা এই কোম্পানিকে ডাকতে পারেন বিটিসিএস নামেও। (BTCs থেকে ইনকাম)


এখন থেকে সরকার দেবে প্রতিমাসে 65 হাজার টাকা করে সারা জীবন বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করে দেখুন।

Satoshi mining app par month $1200 | BTCs কি? | মোবাইল দিয়ে প্রতিমাসে ১০০০০০ টাকা ফ্রিতে ইনকাম



Satoshi mining aap কি?



আপনারা কিংবা আমরা তো এতদিন জেনে এসেছি ভিডিও শেয়ারিং সাইট বলতে শুধুমাত্র ইউটিউব এর নাম অর্থাৎ ভিডিও বলতেই আমরা ইউটিউব কে বুঝে থাকতাম তবে সেই ধারণাটিকে অনেকটা পাল্টে দিয়েছে প্রতিযোগিতামূলক বাজারে ফেসবুক এখন কিন্তু ইউটিউব এর মত ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করা যায় এই ভিডিও দিয়ে ইউটিউব এর মত ফেইসবুক থেকেও টাকা উপার্জন করা যায় যাই হোক এটি অবশ্য বেশ পুরনো ফর্মুলা হয়ে গিয়েছে কারণ কয়েক বছর হয়ে গিয়েছে।

এই ইউটিউব ও ফেসবুকে টেক্কা দেওয়ার জন্য নতুন করে চিনা দেশের প্রতিষ্ঠান নিয়ে এসেছে টিকটক নামে শর্ট ভিডিও প্ল্যাটফর্ম যেটি এখন ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে অর্থাৎ বুঝা গেল বড় কোন প্ল্যাটফর্ম যদি কখনো আসে তাহলে সেটিকে টেক্কা দিতে দ্বিতীয় তৃতীয় কিংবা তার অধিক প্ল্যাটফর্ম চলে আসে।

আপনাদের ভিতরে অনেকেই হয়তো বা বিষয়টি জানেন বিটকয়েন নামে একটি শব্দ পৃথিবীতে প্রচলিত রয়েছে জী বন্ধুরা এই বিটকয়েন এখন ক্রিপ্টোকারেন্সির দুনিয়া বাতাসে অর্থাৎ এখন মানুষ ক্রিপ্টোকারেন্সি বলতে বুঝে থাকে বিটকয়েন কে যেমন সাপান বলতে মানুষ বুঝে থাকে লাক্স ঠিক অনেকটা ওরকমই বলা যেতে পারে। 

এই বিটকয়েন বেচারাও কিন্তু এখন শান্তিতে নেই যদিও বিটকয়েনের পরে অনেক কিপ্ত কারেন্সি দুনিয়াতে এসেছে তবে বিটকয়েনের আশেপাশেও যেতে পারেনি তাদের সামর্থ্য নিয়ে বিটকয়েন ঠিক তার অবস্থানে রয়েছে সেই 2009 সাল থেকে তবে কথায় বলে কোন কিছুই সেরা বলে কিছু নেই এটির প্রমাণ নিয়ে এসেছে এবার চিনা দেশের আরেকটি কোম্পানি অর্থাৎ টিকটক যেমন ইউএসএ'র ইউটিউব ও ফেসবুক কোম্পানিকে টেক্কা দেওয়ার জন্য চীনা প্রতিষ্ঠান নিয়ে এসেছে টিকটক ঠিক ওরকমই জাপানি দেশের কোম্পানির বিটকয়েন কে টেক্কা দেওয়ার জন্য এই নতুন বিটিসিএস অ্যাপ নিয়ে এসেছে চিনা দেশের আরেক কোম্পানি ।

এখন হয়তো বা আপনারা অনেকেই অনুমান করতে পেরেছেন আজকের অ্যাপ্লিকেশনটি কিংবা কোম্পানির কার্যকলাপ কোন দিকে যেতে চলেছে তবে হ্যা অবাক হওয়ার আরো অনেক কিছু রয়ে গিয়েছে কারণ বিট কয়েনের মতো এখানে কাজ করা গেলেও আপনারা জেনে অবাক হবেন বিটকয়েনের থেকে এই নতুন BTCs অ্যাপটির মাধ্যমে 15 থেকে 20 রকম ভাবে বেশি এই অ্যাপটি থেকে এখন অর্থ উপার্জন করা যাচ্ছে।




বিটকয়েন যখন লঞ্চ করা হয় 2009 সালের দিকে তখন মানুষের কাছে তাদের প্রোডাক্টটির প্রচার এর জন্য তারা ফ্রিতে প্রতিদিন পঞ্চাশটির মতো ফ্রি বিটকয়েন প্রতি জনকে মাইনিং করার সুযোগ করে দিয়েছিল যারা সেই সময় সেই সুযোগটি কে বুঝে হোক কিংবা না বুঝে হোক কাজে লাগিয়েছিল তারা এখন কোটি কোটি টাকার মালিক কারণ এখন একটা বিটকয়েনের দাম 40 থেকে 50 লক্ষ টাকা তো বুঝতেই পারছেন বিষয়টি কোথায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে ।

এখন কিন্তু এই সাতোশি অ্যাপ এই অ্যাপ্লিকেশনটি প্রতিদিন মানুষদেরকে বিটকয়েনের মতোই ফ্রিতে মাইনিং করার সুযোগ করে দিচ্ছে যেখান থেকে মানুষ প্রতিদিন ফ্রিতে বিট কয়েনের মতো নতুন ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং করে নিতে পারতেছে বিটকয়েনের সংক্ষিপ্ত নাম হচ্ছে বিটিসি আর সাতোশি এই নতুন অ্যাপ্লিকেশনের সংক্ষিপ্ত ক্রিপ্টোকারেন্সির নাম হচ্ছে বিটিসিএস

এখান থেকে আপনারা কত রকম ভাবে ইনকাম করতে পারবেন আসুন আমরা সংক্ষিপ্তভাবে কিছু বিষয় দেখে নেই তারপরে আমরা বিস্তারিত বিষয় তুলে ধরব।


  1. প্রতিদিন ফ্রী মাইনিং বিটিসিএস কয়েন
  2. ফ্রী গিফট কার্ড
  3. রেফারেল 20% 10% কমিশন
  4. হ্যাস কার্ড সুবিধা
  5. লটারির মাধ্যমে ইনকাম এর সুবিধা
  6. ফ্রিতে বিটকয়েন মাইনিং করার সুবিধা
  7. এছাড়াও আরো কয়েক রকম ভাবে ইনকাম করার সুবিধা

আপনারা এই নতুন অ্যাপ্লিকেশনটির ইন্টারফেস দেখার জন্য নিচের ছবিটি অনুসরণ করুন।

বিটিসিএস কি



কিভাবে সাতোশি অ্যাপ থেকে ফ্রিতে মাইনিং করব?



এই অ্যাপ্লিকেশনে ফ্রিতে মাইনিং করার জন্য প্রথমে আপনাদেরকে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে হবে একাউন্ট খোলা যাবে সম্পূর্ণ ফ্রিতে তবে এখানে কাজ করতে হলে কিংবা ইনকাম পেতে হলে অবশ্যই আপনাদেরকে কেওয়াইসি কমপ্লিট করতে হবে অর্থাৎ আপনাদের আইডেন্টি অবশ্যই প্রথমে কমপ্লিট করতে হবে তাহলেই এখানে ইনকাম করার অপশন গুলো পাওয়া যাবে।

অর্থাৎ আপনি যে একজন রিয়েল মানুষ সেটা প্রথমে যাচাই করে নেবে এই ইনকাম অ্যাপ্লিকেশন এরপর আপনাকে ইনকাম করতে দিবে এটা হল একটি প্রধান বিষয় আর যদি আপনি কেওয়াইসি কমপ্লিট না করেন তাহলে এখানে অ্যাকাউন্ট খুলে রাখতে পারবেন ঠিকই তবে কোন ধরনের ইনকাম পাবেন না।

আপনি যে দেশেই থাকুন না কেন সরকারিভাবে আইডেন্টি হিসেবে যেই ডকুমেন্ট দিয়ে থাকবে সেই গুলোর যেকোনো একটি সাবমিট করতে হবে অর্থাৎ ধরেন আপনার আইডি কার্ড রয়েছে তা হলে সেটির ইনফরমেশন দিয়ে আপনাকে কেওয়াইসি কমপ্লিট করতে হবে অথবা ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা পাসপোর্ট দিয়ে আপনারা সেম আইডি কার্ডের মতই কাজটি করে নিতে পারবেন।


যদি ঠিকঠাক মত আপনি কেওয়াইসি কমপ্লিট করতে পারেন তাহলে প্রতিদিন এই অ্যাপ্লিকেশনে কমপক্ষে একবার লগ ইন করে মাইনিং চালু করে দিতে হবে আর যদি আপনি কেওয়াইসি কমপ্লিট করলেন ঠিকই কিন্তু অ্যাপ্লিকেশনটির ভিতর প্রতিদিন একবার করে ঢুকলেন না তাহলে আপনার অ্যাকাউন্টটি যেকোনো সময় নষ্ট হয়ে যাবে।

প্রতিদিন এই সাতোশি মাইনিং অ্যাপ্লিকেশনের ভিতরে প্রবেশ করে যে দুটি কাজ করতে হবে অর্থাৎ এই অ্যাপ্লিকেশনে ঢোকার পরে নিচে দেখানো স্ক্রিনশট অপশনে চিহ্ন আকারে দেখানো অপশনে লক্ষ করুন ওখানে আপনাদের প্রতিদিন কমপক্ষে একবার করে ক্লিক করতে হবে মাইনিং চালু রাখার জন্য।

ফ্রী মাইনিং অ্যাপ

উপরে দেখানো স্ক্রিনশট ফলো করুন অ্যাপ্লিকেশনটির ভিতরে প্রবেশ করার পরে নিচে যে মাইনিং অপশনটি রয়েছে ওখানে ক্লিক করলে স্ক্রিনশটে দেখান ইন্টারফেস ওপেন হবে এরপর রিসিভ বিটিসিএস অপশনে প্রতিদিন ক্লিক করে দিতে হবে এরপর ঠিক উপরের দিকে থাকা রিসিভ বেনিফিটস অপশনে প্রতিদিন ক্লিক করে দিতে হবে অর্থাৎ BTCs অপশন চালু করলে প্রতিদিন আপনারা এই কোম্পানির অফিসিয়াল মাইনিং ডিজিটাল কারেন্সি ফ্রীতে পাবেন আর রিসিভ বেনিফিটস অপশনে ক্লিক করলে সরাসরি কিছু ফ্রিতে Bitcoin পাবেন এই দুটি কাজ প্রতিদিন অবশ্যই করে দিতে হবে অন্যথায় যে কোন সময় অ্যাকাউন্টটি নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

সহজ ভাষায় বলতে গেলে কোম্পানি চায় এক্টিভ ভাবে যারা এখানে কাজ করবে তারাই ইনকাম পাক আর যারা ইন একটিভ ভাবে এখানে কাজ করবে তারাদের একাউন্ট নষ্ট হয়ে যাক এটা হল বিষয়।



সাতোশি মাইনিং অ্যাপ থেকে কিভাবে ফ্রী গিফট কার্ড পাবো?



লক্ষ করলে দেখা যায় এশিয়ার দেশগুলোর তুলনায় ইউরোপ কান্ট্রি গুলো তে গিফট কার্ড এর ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়তা রয়েছে যেমন আমাজন গিফট কার্ড এর কথা বললেই বোঝা যায় হয়তোবা অনেকেই শুনেছেন আমাজন গিফট কার্ড এর কথা যাইহোক আপনারা জেনে খুশি হবেন বিটিসিএস অ্যাপ্লিকেশনটি দিচ্ছে তারা অফিসিয়াল ভাবে ফ্রিতে গিফট কার্ড তবে এই গিফট কার্ড দিয়ে আপাতত কোনো শপিং করা যাবে না তাহলে কি করা যাবে?।

সাতোশি অ্যাপ্লিকেশনের যেই অফিশিয়াল গিফট কার্ড গুলো দেওয়া হচ্ছে প্রতিটা একাউন্টের বিপরীতে দশটি করে সেগুলো দিয়ে একজন গ্রাহক তার মাইনিং #power বাড়িয়ে নিতে পারবেন তবে একটা একাউন্টে একটির বেশি গিফট কার্ড ব্যবহার করা যায়না আর নিজের গিফট কার্ড কখনো নিজের একাউন্টে ব্যবহার করা যায় না এখন হয়তো বা অনেকে অবাক হতে পারেন।

আসলে অবাক হওয়ার কিছু নেই আপনি একাউন্ট খুললে যেই গিফট কার্ড 10 টি ফ্রিতে পাবেন সেটি যদি আপনার বন্ধুদের ব্যবহার করতে দেন তাহলে ওখান থেকে আপনি একটি হ্যাস পাওয়ার পাবেন নির্ধারিত পরিমাণে আবার যিনি আপনার কোডটি ব্যবহার করবে তিনি একটি #power বৃদ্ধি করতে পারবেন এটা হল একটি বিষয় ।

সহজ ভাষায় বলতে গেলে আপনি অন্যের গিফট কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন আপনার একাউন্টে হ্যাস পাওয়ার বাড়ানোর জন্য আবার আপনার গিফট কার্ড কোড গুলো অন্যদের ব্যবহার করতে দিলে তারা যখন ব্যবহার করবে তখন তারাও নির্ধারিত পরিমাণে #power পাবে আপনিও বেশকিছু নির্ধারিত পরিমাণ #power পাবেন এটা হল গিয়া বিষয়।

গিফট কার্ড কিভাবে আপনারা একটি একাউন্ট এর বিপরীতে দশটি করে পাবেন? কিভাবে ব্যবহার করবেন? কিংবা অন্যদের ব্যবহার করতে দেবেন? অথবা অন্যদের কোডগুলো আপনি কিভাবে ব্যবহার করবেন? এই নিয়ে একটি ভিডিও দেওয়া হয়েছে ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করে বিস্তারিত দেখে নিতে পারেন।

এবং স্ক্রিনশট আকারে নিচের ছবিটি লক্ষ্য করুন তাহলে কিছুটা ইন্টারফেসের মাধ্যমে বুঝতে পারবেন।

বিটিসিএস ফ্রী গিফট কার্ড



Satoshi অ্যাপ থেকে কিভাবে রেফারেল করে ইনকাম করব? 



এই নতুন অনলাইন ইনকাম অ্যাপ্লিকেশনটির মাধ্যমে আনলিমিটেড রেফারেল করে ইনকাম করা যাবে এখানে রয়েছে টু লেভেল পর্যন্ত রেফারেল কমিশন পাওয়ার সুযোগ প্রথম লেভেলে 20 পার্সেন্ট পর্যন্ত রেফারেল কমিশন পাওয়া গিয়ে থাকে দ্বিতীয় লেভেলের রেফারেল কমিশন 10% পর্যন্ত পাওয়া গিয়ে থাকে তবে এটা দিয়ে পাওয়ার বাড়বে এবং ইনকাম বেশি হবে এটা হল রেফারেল কমিশনের বিষয়।

তবে আরেকটি কথা খেয়াল রাখতে হবে একই ডিভাইস দিয়ে একাধিক একাউন্ট খোলা যাবে না একটি এনআইডি কার্ডের কিংবা পাসপোর্ট বা ড্রাইভিং লাইসেন্স এর বিপরীতে একটি একাউন্ট খোলা যাবে আর কমিশন পাওয়া যাবে শুধুমাত্র যারা একাউন্ট ভেরিফাই করবে তাদের থেকে।


হ্যাশ কার্ডের মাধ্যমে কি ধরনের সুবিধা পাওয়া যাবে?



আপনারা এখানে বেশ কিছু ক্যাটাগরির হ্যাসকাড পাবেন যেগুলো অনেকটা গিফট কার্ড এর মতনই ব্যবহার করা যায় অর্থাৎ এটা অনেকটা গিফট কার্ড এর আদলে গড়া হয়েছে সেই কোড গুলো আপনারা ব্যবহার করে আপনাদের একাউন্টের #power আরো বৃদ্ধি করতে পারেন এছাড়াও একাউন্টের আরো রেপুটেশন অনেক বৃদ্ধি করতে পারেন তবে নিজের হ্যাসকাড কখনো নিজের একাউন্টে ব্যবহার করা যাবে না।

তবে এখানে একটা মজার বিষয় রয়েছে আপনি যদি অন্য কারোর হ্যাসকাড কোড ব্যবহার করেন আপনার একাউন্টে তাহলে আপনি যতটা বেনিফিট পাবেন ঠিক যার হ্যাসকাড কোডটি ব্যবহার করবেন সেও ওই পরিমাণ বেনিফিট পাবে এটা হল একটা বিষয় আপনি চাইলে নিজেও হ্যাসকাড কোট তৈরি করে অন্যকে দিতে পারেন আবার অন্যদের হ্যাসকাড কোর্ট আপনি ব্যবহার করতে পারেন।

কিভাবে আপনারা খুব সহজে হ্যাসকাড কোড ব্যবহার করবেন নিজে কিংবা নিজে তৈরি করে অন্যদেরকে ব্যবহার করতে দিবেন এই নিয়ে ইউটিউব চ্যানেলে বিস্তারিত ভিডিও রয়েছে আপনারা চাইলে এখানে ক্লিক করে ভিডিওটি দেখে আরো বিস্তারিত ভালোভাবে জেনে নিতে পারেন।


বিটিসিএস অ্যাপ থেকে লটারির মাধ্যমে কিভাবে ইনকাম করবো?



এটা একটা চমৎকার ইনকাম করার মাধ্যম অর্থাৎ আপনার ভাগ্যকে আপনি যাচাই করে নিতে পারেন এই অপশনের মাধ্যমে অর্থাৎ এখানে সর্বোচ্চ অর্থাৎ প্রথম বিজয়ী k $888 ডলার দিয়ে দেওয়া হয় যেটা বাংলা টাকায় প্রায় এক লক্ষ টাকার কাছাকাছি চলে আসে এ ছাড়াও আরও বেশ কিছু ছোট ছোট অ্যামাউন্ট দেওয়া হয়ে থাকে নিচের দিকে লক্ষ্য করুন যেটার স্কিনশট আপনারা নিচে দেখতে পারতেছেন।

বিটিসিএস লটারি


তবে বলে রাখা ভালো এই লটারির অপশনটি সবাই পাবে না যারা রেফার করতে পারবেন তাদের জন্য এই অপশনটিকে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়ে থাকে অর্থাৎ এখানে তিনটা অপশন থাকে যেকোনো একটা অপশন ধরা যায় কিংবা তিনটা একসাথে ধরা যায় কিছু শর্তসাপেক্ষে। 





বুঝতেই পারতাছেন এখানে যেহেতু ভাগ্যের খেলা যেকোনো সময় লাখপতি এই অপশনের মাধ্যমে হয়ে যাওয়া সম্ভব, কিভাবে এখানে খেলতে হয় লটারি জানতে হলে এখানে ক্লিক করে ইউটিউব চ্যানেল থেকে বিস্তারিত দেখে নিতে পারেন ভিডিওটি দেখে।


কিভাবে satoshi app থেকে বিটকয়েন ইনকাম করব?



যদিও এই কোম্পানির অফিসিয়াল কোন প্রোডাক্ট নয় বিটকয়েন তবে যেহেতু এই কোম্পানির কার্যকলাপ বিটকয়েন কে কেন্দ্র করে সেহেতু এখানে তাদের নিজস্ব প্রোডাক্টের পাশাপাশি বিটকয়েন কিছু পরিমাণে তারা ফ্রিতে দিয়ে থাকে প্রতি রেফারের বিপরীতে এছাড়াও প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট পরিমাণে বিটকয়েন তারা ফ্রীতে দিয়ে থাকে।

কিভাবে আপনারা ফ্রিতে বিটকয়েন পেতে পারেন প্রতিদিন সেটার একটি স্ক্রিনশট আপনারা নিচে দেখতে পারতাছেন এবং পূর্ণাঙ্গ বিষয়টি জানতে আপনারা এখানে ক্লিক করে ইউটিউব চ্যানেল থেকে ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।

Free Bitcoin mining app

এছাড়াও BTCs কয়েন প্রতি 10 মিনিট পর পর আপনারা আনলিমিটেড আয় করতে পারবেন যেটা পরবর্তীতে বিটকয়েনের সমান দাম হলে হয়তো বা প্রতি মাসে 1 লক্ষ বা তারও বেশি ইনকাম করা সম্ভব হতে পারে কারণ ক্রিপ্টোকারেন্সির দাম যেকোনো সময় যেকোনো দামে পৌঁছে যেতে পারে।


কিভাবে Satoshi app or BTCs App এ অ্যাকাউন্ট খুলবো বা কাজ করব?


অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য ইউটিউব চ্যানেলে সুন্দর একটা ভিডিও রয়েছে আপনারা চাইলে ওই চ্যানেল থেকে এখানে ক্লিক করে ভিডিওটি দেখে অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে পারেন এবং ওই ভিডিওর ডেসক্রিপশন বক্সে একাউন্ট খোলার অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড লিংক রয়েছে ওখানে ক্লিক করে ভিডিওটি দেখে অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে পারবেন।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

2 মন্তব্যসমূহ