Ticker

6/recent/ticker-posts

Ads

পৃথিবীর সেরা ফ্রি মাইনিং কোম্পানী এলো Glim network-এখন ইনকাম হবে মোবাইল দিয়ে মাসে ১ লাখ

আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোন অথবা ল্যাপটপ এর  মাধ্যমে ইন্টারনেট সংযোগ চালু রেখে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন । ফ্রিতে ইনকাম করার এটি কিন্তু একটি অন্যতম মাধ্যম বিশেষ করে বর্তমান ডিজিটাল সময়ে । অনলাইন থেকে ইনকাম করার বিষয়টি আপনারা অনেকেই ইতিমধ্যে জানেন আবার অনেকেই জানেন না । তো যারা জানেন না তাদের জন্য এই রিভিওটি খুবই ইন্টারেস্টিং হতে চলেছে । আপনি যদি অনলাইন থেকে সম্পূর্ণ ফ্রিতে ইনকাম করার ইচ্ছা প্রকাশ করে থাকেন তাহলে আশা করি এই রিভিউটি আপনার অনেকটাই উপকারে আসবে । বর্তমান ডিজিটাল সময়ে ক্রিপ্ত কারেন্সির খুব ভালো ছড়াছড়ি আমরা অনলাইন মার্কেটপ্লেসে দেখতে পাই । মার্কেটপ্লেস গুলোতে একের পর এক ক্রিপ্ত কারেন্সির নতুন নতুন কয়েন কিংবা NFT আবির্ভাব আমরা দেখতে পেয়ে যাবো । Pie Network , Satoshi Core Coin জনপ্রিয় আরো অন্যান্য কোম্পানিগুলোর নাম আমরা হয়তো জানি সেখান থেকে কিন্তু অনেকেই ফ্রিতে ইনকাম করে নিয়েছে লক্ষ লক্ষ টাকা । তাদের মতো আপনিও কি পারবেন সেখান থেকে বা ভবিষ্যতে যে কোম্পানিগুলো আসবে সেখান থেকে ফ্রিতে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করতে ? হ্যাঁ অবশ্যই পারবেন । আজকে আমরা আপনাদের মাঝে যে কোম্পানিটি তুলে ধরব যেটি মাধ্যমে আপনারা ফ্রিতেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন সেটি হল Glim Network । এটি সম্পূর্ণ একটি নতুন কোম্পানি । এখানে আপনারা কিভাবে কাজ করবেন এবং কোম্পানিটি কতটা ট্রাস্টেড হতে পারে নতুন অবস্থায় সেটা কিন্তু বলা অনেকটা কঠিন হতে পারে আমাদের কাছে । তবে আপনি এখান থেকে কিভাবে লাভবান হতে পারেন ? কিভাবে নিয়ম মেনে কাজ করে ফ্রিতে টোকেন ইনকাম করে নিতে পারবেন সে বিষয়ে জানার পূর্বে যে মূল্যবান বিষয়টি আমাদের জানা প্রয়োজন সেটি হল Glim Network কি ? আপনি যে কোম্পানির হাত ধরে ইনকাম করতে পারবেন সে কোম্পানির বিষয়ে জানাটা সবার প্রথমেই জরুরি । তাছাড়া প্রাথমিক ধারণা বলতে কিছু রয়েছে যদি না জানলে প্রাথমিক অবস্থায় আপনি ভেঙ্গে পড়তে পারেন । তো যাই হোক কথা না বাড়িয়ে আমারা এখন জেনে নিবো Glim Network কি ? মার্কেটে এর অবস্থান কেমন হতে চলেছে এবং কারা কারা এই কোম্পানির টোকেনগুলো এক্সচেঞ্জ এর মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করতে পারবে ? ( অনলাইন থেকে ফ্রিতে ইনকাম )



পৃথিবীর সেরা ফ্রি মাইনিং কোম্পানী এলো Glim network-এখন ইনকাম হবে মোবাইল দিয়ে মাসে ১ লাখ



Glim Network কি ?



ডিজিটাল সময়ে ডিজিটাল ভাবে লেনদেনের অন্যতম একটি মাধ্যম হল এই ক্রিপ্ত কারেন্সি । ক্রিপ্ত কারেন্সি গুলোর মধ্যে লেটেস্ট একটি কোম্পানি আমাদের মাঝে উপস্থিত হয়েছে যেটির নাম হল Glim NetworkGlim Network এর অফিসিয়াল পেইজে হোয়াইটপেপার এর মাধ্যমে জানতে পেরেছি জুন , 2022 তারিখে কোম্পানিতে নতুন করে মার্কেটে এসে নিজেদেরকে উপস্থাপন করেছে । সেখান থেকে আমরা আরো জানতে পেরেছি কোম্পানিটি বেশ কিছু সুবিধা নিয়ে মার্কেটে আসতে চলেছে । অন্যান্য ক্রিপ্ত কারেন্সি রিলেটিভ কোম্পানিগুলোর মত তারা নিজেরাও তাদের নিজস্ব একটি কয়েন মার্কেটে এনেছে যেটির নাম Glim Coin । অন্যান্য কোম্পানিগুলোর মত এখানেও কিন্তু আমরা এয়ার ড্রপের উপস্থিতি দেখতে পেয়েছি যেটির সাহায্যে Glim Coin কালেক্ট করে নিতে পারবেন মাইনিং এর মাধ্যমে সম্পূর্ণ ফ্রিতে । এছাড়াও  কোম্পানিটি তাদের অফিসিয়াল টুইটার ওয়েবসাইটে তাদের নিজস্ব কোম্পানির বিভিন্ন তথ্যাদি উপস্থাপন করেছেন আপনারা চাইলে সেটি জেনে নিতে পারেন । এছাড়াও কোম্পানিটির থাকছে একটি রোড ম্যাপ অর্থাৎ ফিউচার পেলেন তারা আগামীতে কিভাবে আমাদের মাঝে তাদের বিজনেস কিভাবে শুরু করতে পারবে এবং কিভাবে তাদের কর্মকান্ডগুলোকে এগোবে সে বিষয়ে একটি ধারণার প্রতিচ্ছবি । আমাদের মধ্যে যাদের এই বিষয়গুলো জানার প্রয়োজন তারা কোম্পানিটির ওয়েবসাইট থেকে রোড ম্যাপ দেখে জেনে নিতে পারেন ।  কোম্পানিতে রোড ম্যাপ এ তারা যে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করেছে সেগুলো আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করা হলো : প্রথমেই তারা উল্লেখ করেছে তারা তাদের কোম্পানিটিকে একটি ডিসেন্টালাইজ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে সকলের মাঝে রিপ্রেজেন্ট করবে এবং এখানে আরো যে তথ্য রয়েছে সেগুলো হল এখানে আমরা ক্রিপ্ত ওয়ালেট পেয়ে যাব । আরো থাকছে Crypto Swap , Stacking ইত্যাদি । এছাড়াও আরো যে বিষয়টি এখানে থাকছে সেটি জেনে অনেকেরই খুশি হওয়ার কথা সেটি হচ্ছে এয়ার ড্রপ ‌। এয়ার ড্রপের মাধ্যমে আমরা খুব সহজেই একটি নির্দিষ্ট সময় পর তাদের কোম্পানি থেকে ফ্রিতে কয়েন ইনকাম করে নিতে পারব । কোম্পানিটির রোড ম্যাপ এবং ফিউচার প্ল্যান দেখে আমার কাছে মনে হয়েছে কোম্পানিটি আগামীতে তাদের গ্রাহকদেরকে একটি হিউজ পরিমাণ ইনকাম করার সুযোগ করে দিবে । যেহেতু কোম্পানিটি এখানে বলেছে যে তারা তাদের কোম্পানিটিকে ডিসেন্টালাইজ প্লাটফর্ম হিসেবে  করবে সেহেতু বলা যায় কোম্পানিটি যথেষ্ট পরিমাণ সিকুইরেটেড ব্যবস্থা নিয়ে মার্কেটপ্লেসে চলে এলো । এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত একটি সুখবর । অনলাইন থেকে যারা সম্পূর্ণ ফ্রিতে ইনকাম করতে চায় আগামীতে এই Glim Network কোম্পানিতে তাদের জন্য একটি হিউজ পরিমাণ ইনকাম করার সাইট হিসেবে হতে পারে বলে আমার ধারণা । কোম্পানিটি Solona ব্লক চেইনের মাধ্যমে তাদের টোকেনকে মার্কেটে লঞ্চ করেছে । ( Glim Network কি

কিভাবে Glim Token ফ্রিতে পাওয়া যাবে ?


Glim Network কোম্পানিটি তাদের যে টোকেন Glim Token রয়েছে সেটিকে আমরা কোথা থেকে এবং কিভাবে ফ্রিতে পাব ? এটা কিন্তু একটি মূল্যবান প্রশ্ন তার কারণ হলো যে এই কয়েন গুলোর মাধ্যমে আপনারা ভবিষ্যতে এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা পকেটে নিতে পারবেন সে কয়েন গুলো কিভাবে ফ্রিতে নিয়ে নিবেন । আমরা সকলেই হয়তো জানি ক্রিপ্ত কারেন্সি রিলেটিভ কোম্পানিগুলো এয়ার ড্রপের মাধ্যমে তাদের কয়েন বা এনএফটি গুলো ফ্রিতে দিয়ে থাকে । এক এক কোম্পানি গুলো একেক ধরনের এয়ার ড্রপের মাধ্যমে কয়েন বা এনএফটি ফ্রিতে দিয়ে থাকে । এই কোম্পানিতে কিভাবে ফ্রিতে টোকেন পাওয়া যাবে ? এই কোম্পানিটির এয়ার ড্রপ সিস্টেমটি কিছুটা বিভিন্ন তাদের এপসটিতে লগইন হওয়ার পর আপনারা ক্লেম মোড় নামে একটি অপশন দেখতে পেয়ে যাবেন । 4 ঘন্টা পর পর Claim More অপশনটিতে ক্লিক করে বামপাশ থেকে ডান পাশে স্লাইড করলেই মাইনিং চালু হয়ে যাবে আর এজন্য আপনারা 0.10 Glim Token পেয়ে যাবেন রিওয়ার্ড হিসেবে । এছাড়াও এখানে রেফারাল অপশন রয়েছে যেটা সঠিকভাবে পালন করে আপনি আপনার মাইনিং স্পিড বাড়াতে পারবেন । প্রতিটা রেফার যখন চার ঘন্টা পর পর ক্লেইম করবে তখন আপনি পেয়ে যাবেন 0.50 Glim token প্রতিটা রেফারের জন্য । যতক্ষণ পর্যন্ত কোম্পানিটি পূর্ণাঙ্গ কার্যক্রম শুরু না করবে তত দিন পর্যন্ত রেফার কমিশন পেয়ে যাবেন । তবে একটি স্মার্ট ফোনে একটির বেশি অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে না । এছাড়াও এখানে আপনি একটি ভিডিও দেখার মাধ্যমে একটি কয়েন রিওয়ার্ড হিসেবে পাবেন । এভাবে চাইলে আপনি যত খুশি তত ভিডিও দেখে রিওয়ার্ড জিতে নিতে পারেন এবং আগামীতে এই কোম্পানিতে যে আপডেট মাধ্যমে আরো অফার আসবে সেগুলো জানতে আমাদের ওয়েবসাইট ডিজিটাল বাংলা 360 ,youtube কিংবা ফেসবুক চ্যানেলে নিয়মিত চোখ রাখতে পারেন । ( How to get glimmer Token in creatures of sonaria )

কোম্পানিটি কত দিনের মধ্যে মার্কেটে মূল বিজনেসের কার্যক্রম শুরু করতে পারবে ?


একটি কোম্পানি মার্কেটে হুট করে নিজেদেরকে রিপ্রেজেন্ট করতে পারে না এজন্য তাদেরকে অনেকদিন সময় লেগে যায় । সেটি হতে পারে এক বছর বা দুই বছর আবার এর কম বেশিও হতে পারে । তবে এজন্য আমাদেরকে যে বিষয়টি করতে হবে সেটি হচ্ছে ধৈর্য ধরে তাদের এয়ার ড্রপ থেকে তাদের কয়েন বা NFT ফ্রিতে ইনকাম করে রাখা । একটা সময় কোম্পানিটি যখন মার্কেটে চলে আসবে তখন কিন্তু আপনি পয়েন্ট গুলোকে এক্সচেঞ্জ করে একটি ইউজ পরিমান টাকা ইনকাম করে নিতে পারবেন । আর যদি আপনি চান যে এক মাসের মধ্যেই কয়েন গুলোকে এক্সচেঞ্জ করে নিবেন তাহলে কিন্তু এই কোম্পানিটি আপনার জন্য সুফল বইয়ে আনতে পারবে না । এখন আমরা অনেকেই হয়তো বুঝতে পারছি যে কোম্পানিতে থেকে ইনকাম করার জন্য আমাদেরকে কি পরিমান ধৈর্য রাখতে হবে এবং কতক্ষণ পর্যন্ত ধৈর্য ধরতে হয় হতে পারে । আবার দেখা গেল কোম্পানিটি মার্কেটে ছয় মাসের মধ্যেই নিজেদের ব্যবসার কার্যক্রম চালু করে তুললো এবং সকলের কাছে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে লাভ করল তখন কিন্তু আপনি সেখান থেকে লাভবান হতে পারবেন । এজন্য আপনাকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ সময় ধৈর্য ধরে কাজ চালিয়ে যেতে হবে কোম্পানিটির মার্কেটে না আসার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত । আশা করি বিষয়টি সকলেই বুঝতে পেরেছেন । আর একটি কথা মাথায় রাখবেন যারা এখানে ধৈর্য সহকারে কাজ করতে পারবেন কেবলমাত্র তারাই কিন্তু উপকৃত হতে পারবে আগামীতে । এই নিয়ে আপনাদের যদি কোন মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই সেটি কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন ।

কোম্পানিটি থেকে মাসে কত ডলার বা টাকা ইনকাম করা যাবে ?


Glim Network কোম্পানি থেকে আমরা মাসে কত ডলার বা টাকা ইনকাম করতে পারব এই বিষয়ে কিন্তু আরও একটি প্রশ্ন আমাদের মনের ভেতর থাকতে পারে ? পেমেন্ট পাওয়ার আগে আমাদেরকে কিন্তু নিয়ম মেনে কাজ করতে হবে ? আমরা যদি নিয়ম না মেনেই কাজ করে যায় এবং অনিয়মিতভাবে কাজ করি তাহলে কিন্তু এখান থেকে একটা প্রফিট আগামীতে করা যাবে না । আর যারা নিয়ম মেনে সঠিকভাবে কাজ করতে পারবে তারা মাসে কত টাকা ইনকাম করতে পারবে সেই বিষয়ে একটি হিসাব আনুমানিকভাবে আপনাদের মাঝে তুলে ধরা হলো । ধরুন আপনি ফ্রিতে অথবা যেভাবেই হোক 10,000 Glim Coin উপার্জন করেছেন । তারপরেই দেখা গেল কোম্পানিটি মার্কেটে চলে আসলো এবং প্রতিটি কয়েন 0.10$ পরে মার্কেটে বিক্রি হচ্ছে তাহলে আপনি একটু হিসাব মিলিয়ে দেখুন আপনি কত টাকার মালিক রয়েছেন । তাহলে আপনি এই কোম্পানির মাধ্যমে ইনকাম করতে পারছেন 10,000×0.10=1,000$ , বাংলা টাকায় যেটার দাম চলে আসে এক লক্ষ টাকা । আরেকটু পিছিয়ে গিয়ে ভেবে দেখুন এই কয়েন গুলো ইনকাম করার জন্য আপনাকে কিন্তু কোন ইনভেস্ট করতে হয় নি । আর এই কয়েন বা এনএফটি গুলোর মূল্য এর চেয়েও বেশি কম হতে পারে । সেটা কিন্তু নির্দিষ্ট ভাবে বলা অনেকটা কঠিন । আশা করি আপনারা সকলে হয়তো একটি ধারনা পেয়েছেন এই কোম্পানিটির মাধ্যমে আগামীতে আপনারা কি পরিমান ইনকাম করতে পারবেন । 

Glim Network কোম্পানিতে কিভাবে একাউন্ট খুলতে হবে ?


কোম্পানিটিতে ইনকাম করার পূর্বে আমাদেরকে অবশ্যই একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে তার কারণ হলো অ্যাকাউন্ট ব্যতীত আমরা কিন্তু ওয়েবসাইটে ঢুকতে পারবো না বা মাইনিং এর মাধ্যমে কয়েন ইনকাম করতে পারবো না । এজন্য আমাদেরকে সর্বপ্রথম অ্যাপসটি ইন্সটল করতে হবে অ্যাপটি ইন্সটল করার জন্য এখানে ক্লিক করুন । এরপর অ্যাকাউন্ট খোলার সময় অবশ্যই রেফার কোড ব্যবহার করতে হবে । যদি রেফার কোড ব্যবহার না করে একাউন্ট খুলেন তাহলে কিন্তু আপনি নির্ধারিত বোনাস পাবেন না । তাই অ্যাকাউন্ট খোলার সময় 9IC6QD41 এই রেফার কোডটি ব্যবহার করুন । অ্যাপ্লিকেশনটি ইন্সটল হওয়ার পর আপনার সামনে একটি ইন্টারফেস চলে আসবে এবং সেখান থেকে আপনি ক্রিয়েট এন্ড একাউন্টে ক্লিক করে এগিয়ে যাবেন । এগিয়ে যাওয়ার পর উনাকে সেখানে একটি ইউজার নেম দিতে হবে এবং আপনার একটি ইমেইল এড্রেস দিতে হবে । তবে একটি বিষয় খুব ভালো করে মাথায় রাখবেন তারা কিন্তু আপনাকে ইমেইল এড্রেস ভেরিফাই এর মাধ্যমে একাউন্ট ক্রিয়েট করাবে অর্থাৎ একাউন্টে লগইন করার পরে আপনার ইমেইলে একটি পিন কোড দিয়ে দিবে যেটিকে আপনাদের আবার একাউন্টে দিয়ে ভেরিফাই করে নিতে হবে । এখানে আপনি যে নামটি ব্যবহার করবেন সেটি অবশ্যই আপনার এনআইডি কার্ড বা পাসপোর্ট অথবা ড্রাইভিং লাইসেন্স এর সাথে information মিল রেখে দিতে হবে তার কারণ হলো তাতে কোম্পানিটি পরবর্তীতে আইডেন্টিফাই ভেরিফিকেশন করবে । আর এক্ষেত্রে দেখা গেল আপনি ভুল ইনফরমেশন দিয়ে একাউন্ট ক্রিয়েট করলেন তাহলে আইডেন্টিটি ভেরিফিকেশন করার সময় কিন্তু আপনি ধরা খেয়ে যাবেন এবং পেমেন্ট নিতে পারবেন না । এই বিষয়টিকে অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে । ইউজার নেম এবং ইমেইল বসানোর পরে একটি পাসওয়ার্ড সিলেক্ট করতে হবে তো আমার পক্ষ থেকে সাজেস্ট থাকবে একটি স্টংক পাসওয়ার্ড ব্যবহার করার । আর এখানে যে তথ্যগুলো দিবেন সেগুলো অবশ্যই আপনি আপনার নোটপ্যাডে জমা করে রাখবেন । যাতে করে পরবর্তী সময়ে খুব তাড়াতাড়ি খুঁজে বের করতে পারেন । তো ইউজারনেম এবং ইমেইল ও পাসওয়ার্ড দেওয়ার পরে নেক্সট আইকনে ক্লিক করে আপনাকে রেজিস্টার করে নিতে হবে । এভাবেই আপনি এই কোম্পানিটিতে খুলতে পারবেন । আশা করি বিষয়গুলো আপনারা স্পষ্টভাবেই বুঝতে পেরেছেন । ( Glim Network  কিভাবে একাউন্ট খুলব )


Post a Comment

0 Comments