Ticker

6/recent/ticker-posts

Ads

ফ্রিতে এয়ারড্রপ থেকে প্রতিমাসে ১০০০০০ টাকা ইনকাম করার উপায়-Airdrop এ কিভাবে কাজ করতে হয়?

টাকা এমন একটা বস্তু যেটি সবারই প্রয়োজন রয়েছে সেই টাকা যদি ডিজিটাল এই যুগে সহজে ইনকাম করা যায় ইন্টারনেট ব্যবহার করে অর্থাৎ হাতে থাকা স্মার্টফোন কিংবা ল্যাপটপ দিয়ে তাহলে কেমন হয় বন্ধুরা? অবশ্যই আপনাদের মূল্যবান মতামত কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

বর্তমান এই যুগে অনেক বড় বড় কোম্পানিগুলো বিভিন্ন সময় তাদের বিভিন্ন ডিজিটাল প্রোডাক্ট মার্কেটে নিয়ে আসে আর সেই প্রোডাক্টগুলোকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে নেওয়ার জন্য বিভিন্ন সময় তারা ফ্রিতে এয়ারড্রপের মাধ্যমে অফার চলাকালীন সময়ে অংশগ্রহণ করা মানুষদেরকে ফ্রিতে ডলার বা টাকা দিয়ে থাকে তবে এটিও ভুলে গেলে চলবে না প্রত্যেকটা কোম্পানিরই কিছু নিয়ম রয়েছে কোম্পানি যেভাবে বলবে ঠিক সেভাবে কাজ যদি কমপ্লিট করা যায় তখনই কোম্পানির পক্ষ থেকে রিওয়ার্ড পাওয়া যায় অর্থাৎ কোম্পানি ফ্রি তে ডলার বা টাকা দিয়ে থাকে। 

তবে এ বিষয়টি আপনারা জেনে রাখতে পারেন কোম্পানিগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এয়ারড্রপের মাধ্যমে যেই ওয়েবসাইট কিংবা অ্যাপ্লিকেশনের প্রমোশনের বিনিময়ে ফ্রিতে টাকা দিয়ে থাকে সেগুলোর ভিতরে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে বিভিন্ন ক্রিপ্টোকারেন্সি রিলেটিভ অর্থাৎ নতুন কোন কয়েন কিংবা এনএফটি যদি কোন কোম্পানি বাজারে আনার চিন্তা করে সেক্ষেত্রে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কিংবা অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে যেটাকে আমরা ফ্রিতে মাইনিং অ্যাপ বলে থাকি অথবা ফ্রিতে মাইনিং ওয়েবসাইট বলে থাকি অথবা ফ্রিতে এনএফটি উপার্জন বলে থাকি সেগুলোর মাধ্যমে তারা এই এয়ারড্রপ এর অফার গুলো দিয়ে থাকে এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ডিজিটাল পেমেন্ট মেথরের এয়ারড্রপ আসে যেগুলো থেকেও আমরা হিউজ পরিমাণ ডলার বা টাকা ইনকাম পেয়ে থাকি এর ভিতর আরও জনপ্রিয় আরেকটি মাধ্যম হচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানি যখন ডিজিটাল ক্রিপ্টোকারেন্সি ওয়ালেট কিংবা এন এফ টি ভিত্তিক মার্কেটপ্লেস নিয়ে আসে সেগুলোর মাধ্যমে তারা অনেক পরিমাণ ইনকাম দিয়ে থাকে বিশেষ করে ওয়ালেট অফার গুলোতে বেশি পরিমাণ টাকা দিয়ে থাকে একেক জন ইউজার অনেক সময় এক লাখ থেকে দেড় লাখ টাকা করে পেয়ে থাকেন এই ওয়ালেটের কিংবা এনএফটি মার্কেট প্লেস এর অফার গুলোতে জয়েন হয়ে, এখানে কিন্তু শেষ নয় এছাড়াও বিভিন্ন সময় ডোমেনহোস্টিং কোম্পানিগুলো এয়ারড্রপ দিয়ে থাকে সেগুলো তো আরো জনপ্রিয় ও আরো প্রফিট করার আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম কোম্পানিগুলো যখন এয়ারড্রপ দিয়ে থাকে সেগুলো থেকে অনেকে ২ লাখ ৩ লাখ টাকা করেও ইনকাম করতে পারে।

মনে রাখবেন কোম্পানি যত বড়ই হোক না কেন সেই কোম্পানির যদি কমিউনিটি না থাকে তাহলে ওই কোম্পানির কোন ভ্যালু নেই এজন্যই কোম্পানিরা ফ্রিতে রিওয়ার্ড দিয়ে থাকে কোম্পানির প্রচার ও প্রসারের জন্য সাথে কমিউনিটি বিল্ড আপ করে নেয় ভবিষ্যতে তাদের ইনকাম চালিয়ে নেওয়ার প্রয়োজনে এতক্ষণে হয়তো বা আপনার বুঝে গিয়েছেন: এয়ারড্রপ কি? এয়ারড্রপে কেন আমরা জয়েন হব? এয়ারড্রপ থেকে কেন আমরা টাকা পাই? এবং কোম্পানিগুলো এয়ারড্রপের মাধ্যমে কেন আমাদের টাকা দেয়? এছাড়াও আপনারা চাইলে এখানে ক্লিক করে এয়ারড্রপ সম্পর্কে এ টু জেড আরো জেনে নিতে পারেন বিস্তারিত।



এয়ারর্ড্রপ থেকে কত টাকা ইনকাম করা যায়?




আপনাদের অনেকের মনেই এরকম প্রশ্ন আসাটা খুবই স্বাভাবিক তবে মনে রাখবেন একেক কোম্পানির এয়ারড্রপ অফার গুলো একেক রকম হয়ে থাকে অর্থাৎ আমি বুঝাতে চাইছি যদি কোম্পানি বড় হয়ে থাকে তাহলে তাদের রিওয়ার্ড দেওয়ার পরিমাণ অনেক বড় হয় আর কোম্পানি যদি মিডিয়াম হয়ে থাকে তাহলে সেই রিওয়ার্ডগুলোর পরিমাণও মিডিয়াম হয় এবং যদি কোম্পানি ছোট হয়ে থাকে তাদের রিওয়ার্ড দেওয়ার অফার গুলো ছোট হয়ে থাকে। এখন যদি আপনারা আরেকটি প্রশ্ন করেন কত টাকা এয়ারড্রপ থেকে ইনকাম করা যায়? তাহলে এটির সঠিক উত্তর হচ্ছে আপনি যদি প্রতি মাসে রিয়েল ৩০ থেকে ৪০ টি এয়ারড্রপে জয়েন হতে পারেন নিয়ম মেনে কাজ করতে পারেন তাহলে কোম্পানিগুলো থেকে প্রতি মাসে ৫০০০০ টাকা থেকে শুরু করে ১ লাখ কিংবা ২ লাখ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করা সম্ভব বা করতে পারবেন ফ্রিতে মোবাইল কিংবা ল্যাপটপ ব্যবহার করে ঘরে বসে ইন্টারনেট দিয়ে যে কেউ যেকোনো দেশ থেকে।
যাইহোক আপনারা সকলে যাতে ফ্রিতে মোবাইল কিংবা ল্যাপটপ দিয়ে ঘরে বসে প্রতি মাসে ৫০০০০ থেকে ১ লক্ষ কিংবা তারও বেশি ইনকাম করতে পারেন এজন্যই ডিজিটাল বাংলা ৩৬০ কোম্পানির এই উদ্যোগ গ্রহণ করা আমরা আপনাদের শিখাব কিভাবে আপনারা এয়ারড্রপে অংশগ্রহণ করবেন কিভাবে সঠিক নিয়ম কাজগুলো শিখে টাকা ইনকাম করার জন্য।


নিত্যনতুন ও বিশ্বস্ত এয়ারড্রব গুলোতে জয়েন হতে নিচে দেওয়া লিজগুলো ফলো করুন।


1. Vanguard Wallet Airdrop FREE Make money online





ফ্রিতে এয়ারড্রপ থেকে প্রতিমাসে ১০০০০০ টাকা ইনকাম করার উপায়-Airdrop এ কিভাবে কাজ করতে হয়?



এছাড়াও আপনারা যদি বিভিন্ন ক্রিপ্টোকারেন্সি বিভিন্ন বিশ্বস্ত মার্কেট প্লেসের মাধ্যমে কিংবা নতুন নতুন কয়েন গুলো দিয়ে ট্রেড করার মাধ্যমে যদি ট্রেন্ডিং শিখতেট্রেডিং করে টাকা উপার্জন করতে চান প্রতি মাসে ১ লাখ থেকে ২ লাখ কিংবা তারও বেশি তাহলে এখানে ক্লিক করে এই ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করতে পারেন তবে ট্রেডিং সম্পূর্ণ নিজ দায়িত্বে করবেন যদি আপনি করতে চান।

Post a Comment

0 Comments