Ticker

6/recent/ticker-posts

Ads

সরকার অনুমোদিত অনলাইন সাইট থেকে টাকা ইনকাম

বিজ্ঞাপন বা অ্যাড দেখে ও আউটসোর্সিং কাজ করে বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত ইন্টারন্যাশনাল মানের অনলাইন ইনকাম সাইট থেকে মাসে 30 থেকে 40 হাজার টাকা ইনকাম করা যাবে মোবাইল কম্পিউটার ল্যাপটপ দিয়ে ঘরে বসে বলেছেন এই ইনকাম সাইট এর এডমিন ।

অনলাইন ইনকাম কথাটা শুনলেই কিন্তু অনেকটা ভাললাগা কাজ করে কারণ যেহেতু এখানে স্বাধীনতা রয়েছে শুধুমাত্র মোবাইল কম্পিউটার ল্যাপটপ এর মাধ্যমে ইন্টারনেট কানেকশন দিয়ে কাজ করে ইনকাম করা যায় । কারো ধারে ধারে দৌড়াতে হয় না কাজের জন্য, এজন্য আমাদের প্রায় সকলের কাছে ভালোলাগাটা বেশি কাজ করে থাকে ।

প্রায় সব সময়ই আমি ফোন কল কিংবা কমেন্ট গুলো পেয়ে থাকি এ ধরনের যে ভাইয়া এমন একটা ইনকাম ওয়েবসাইট দেন যেখান থেকে আমরা কাজ করে বিকাশে বা নগদ এর মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারব । অনেক খোঁজাখুঁজি করে আজকে এরকম একটি ইনকাম সাইট পেয়েছি যেখান থেকে আপনারা কাজ করে সারাজীবন ইনকাম করতে পারবেন ঘরে বসে আশা করা যায় ইনশাআল্লাহ ।


সরকার অনুমোদিত অনলাইন সাইট থেকে টাকা ইনকাম


এই সাইটটি যে সরকার অনুমোদিত তা কিভাবে বুঝবো ?


ইতিপূর্বে হয়তোবা আমরা অনেকেই জানতে পেরেছি যে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ফ্রিল্যান্সিং প্রজেক্টটা কে অনুমোদন করা হয়েছে বা অনুমোদন দিয়েছেন বাংলাদেশ সরকার, এরই অংশ হিসাবে এই কোম্পানিটির অনলাইন মার্কেটপ্লেস এ আশা কোম্পানিটির নাম হচ্ছে সহায় লিমিটেড এই সহায় লিমিটেড নামে তারা নিবন্ধন নিয়েছেন বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তাদের মূল কোম্পানির নাম হচ্ছে সহায় লিমিটেড এছাড়াও তাদের অনেকগুলো সাইট রয়েছে যেমন বড় বড় কোম্পানিগুলো তে হয়ে থাকে অর্থাৎ এক্সাম্পল ধরেন ডিজিটাল বাংলা 360 গ্রুপ লিমিটেড, চলুন আরেকটু ভালো করে বুঝি নেই যে কোম্পানির অধীনে অনেকগুলো প্রোডাক্ট থাকে সে কোম্পানিগুলো বলে থাকে যেমন বসুন্ধরা গ্রুপ আকিজ গ্রুপ এরকম । সহায় লিমিটেডের অনেকগুলো সার্ভিস বা প্রোডাক্ট রয়েছে যেমন সহায় প্লাস ডটকম যেখানে আউটসোসিং কাজ করে ইনকাম করা যায় এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমেে এরপর রয়েছে সহায় বিডি নিউজ ডটকম যেখানে নিউজ পড়ে লাইক কমেন্ট শেয়ার করে ইনকাম করা যায় । সহায় লিমিটেডের বড় প্রজেক্ট এর মধ্যে আরেকটি রয়েছে সহায় ই-কমার্স ওয়েবসাইট যেখান থেকে পণ্য কেনাকাটা ও বিক্রি করে ইনকাম করা যায় । এবং সহায় লিমিটেডের আপকামিং অনেকগুলো প্রজেক্ট রয়েছে যেগুলো একের পর এক আসতে চলেছে এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে । সহায় অ্যাপের মাধ্যমে ইনকাম করা যেখানে হোয়াটসঅ্যাপের মতো কল করার সুবিধা ও চ্যাটিং করার সুবিধা রয়েছে এবং এগুলো করার মাধ্যমে ইনকাম হবে । আপনারা জেনে খুশি হবেন সহায় লিমিটেড কোম্পানিতে আসতে চলেছে মোট 40 ধরনের কাজ যেখানে টিভি দেখে ইনকাম রেডিও শুনে ইনকাম হবে তো অনেকটা বুঝতেই পারতেছেন কতটা অসাধারণ হতে চলেছে এই অনলাইন ইনকাম সাইট টি আমাদের জন্য । সহায় লিমিটেডের সরকার অনুমোদিত লাইসেন্স এর ফটোকপি যেটা আপনারা নিচের ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন ।





সহায় লিমিটেড কোম্পানিতে কি ধরনের কাজ করা যাবে ?

বিষয়গুলো আমি এর আগেও একবার বলেছি তারপরও আপনাদের সুবিধার প্রয়োজনে আমি বিষয়টা বিস্তারিত আপনাদের মাঝে উল্লেখ করছি । সহায় লিমিটেড কোম্পানিতে যে কাজগুলো রয়েছে তার ভিতরে উল্লেখযোগ্য কাজগুলো হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং আউটসোর্সিং কাজ করে ইনকাম এখানে ভিডিও দেখলে ইনকাম হয়ে থাকে নিউজ পড়লে ও লাইক কমেন্ট শেয়ার করলে ইনকাম হয়ে থাকে । যে কাজগুলো কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই করা যায় । বাকি কাজগুলো আস্তে আস্তে আসবে যেগুলো আমি উপরের দিকে বলেছি ।


সহায় লিমিটেড কোম্পানিতে কি যে কোন দেশ থেকে কাজ করা যাবে ?


বর্তমানে শুধুমাত্র বাংলাদেশ থেকে সহায় লিমিটেড কোম্পানির যতগুলো সার্ভিস রয়েছে এখন পর্যন্ত সবগুলোতে কাজ করা যাচ্ছে । তবে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই শোনা যাচ্ছে যেকোন দেশ থেকে সহায় লিমিটেড কোম্পানির সকল সার্ভিস গুলো পাওয়া যাবে ।


সহায় লিমিটেড থেকে মাসে কত টাকা ইনকাম করা যাবে ?


যদিও সহায় লিমিটেডের এমডি স্যার মোঃ নাজমুল স্যার বলেছেন সহায় কোম্পানি থেকে প্রতিটা গাহক প্রতি মাসে 30 থেকে 40 হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবে এটা আবার ভুলে গেলে চলবেনা সহায় এর যাবতীয় কাজ গুলো সব একসাথে চালু হলেই এই অ্যামাউন্টটা ইনকাম করা যাবে এটিই তিনি মিন করেছেন । তবে আমার ব্যক্তিগত মতে যেটা আমি কাজ করে বুঝেছি তাতে বলা চলে এখানে আপনি যত বেশি কাজ করতে পারবেন তত ইনকাম পাবেন এবং এখানে রয়েছে 10 লেভেল পর্যন্ত রেফার কমিশন এর ব্যবস্থা অর্থাৎ 10 লেভেল পর্যন্ত রেফার কমিশন পাওয়া যাবে যার টিম যত বড় তার ইনকাম তত বেশি হবে । যথেষ্ট পরিমাণ পরিশ্রম যারা করতে পারবেন তারাই এই পরিমাণের টাকা ইনকাম করতে পারবেন আশা করা যায় । আমি কয়েক সপ্তাহের ভিতরে এই পরিমাণ ইনকাম করেছি যেটা আপনারা স্ক্রিনশট আকারে নিচের ছবিতে দেখতে পারতেছেন


সহায় কোম্পানিতে কি ফ্রিতে কাজ করা যাবে ?


সহায় কোম্পানির সবগুলো ইনকাম ওয়েবসাইটে আপনারা ফ্রিতে একাউন্ট খুলতে পারবেন তবে একবারে ফ্রী তে কাজ করার কোনো সুযোগ নেই, কিছু কন্ডিশন ফিলাপ করলেই মিলবে সকল ধরনের কাজ করার সুযোগ যেমন সহায় প্লাস এর রয়েছে লার্নিং এন্ড আর্নিং নামে একটি প্যানেল যেটা শুধুমাত্র ক্রয় করার মাধ্যমে আউটসোর্সিং কাজ গুলো করার অনুমোদন পাওয়া যায় । তবে এখানে একটি মজার বিষয় আছে আপনি যখন লার্নিং এন্ড আর্নিং প্যানেল ক্রয় করবেন ঠিক ওই টাকার সমপরিমাণ মূল্যের পণ্য আপনার ঠিকানায় সহায় কোম্পানি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে তিনদিনের ভিতরে । ধরেন আপনি লার্নিং এন্ড আর্নিং প্যানেলটি ২৫০০ টাকা দিয়ে ক্রয় করেছেন এই পঁচিশ শো টাকার সমপরিমাণ পণ্য আপনার ঠিকানায় বা আপনার কাছে পাঠিয়ে দেবে কোম্পানি সে হত কিন্তু আপনার টাকা কোম্পানিতে পড়ে থাকল না । মাঝখান থেকে আপনি বা আপনারা সহায় কোম্পানিতে কাজ করে ইনকাম করার সুযোগ পেয়ে গেলেন । এছাড়াও আরও সুবিধা রয়েছে আপনি যে 25 শো টাকা দিয়ে লার্নিং এন্ড আর্নিং প্যানেলটি কিনলেন আপনার একটা সিরিয়াল থাকবে সেই সিরিয়াল অনুযায়ী আপনি আবার এই টাকাটা একটা সময়ে 25 টাকা সমপরিমাণ ক্যাশব্যাক পেয়ে যাবেন অর্থাৎ আপনার সহায় প্লাস একাউন্টে যোগ হয়ে যাবে । এছাড়াও সহায় প্লাসে আরও বিভিন্ন ধরনের ইনকাম প্যানেল রয়েছে পছন্দ মতো কিনে নিতে পারেন চাইলে । সকল ইনকামের ক্ষেত্রে 15 পার্সেন্ট সরকারি টেক্স কেটে রাখা হবে ।


সহায় লিমিটেড কোম্পানিতে একাউন্ট খুলব কিভাবে ?


সহায় প্লাস একাউন্ট কলা খুবই সহজ তবে সহায় প্লাস একাউন্ট খুলতে অবষ্যই একটি রেফার কোড এর প্রয়োজন পড়বে রেফার কোড ব্যবহার করা ছাড়া আপনি বা আপনারা অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন না । কিভাবে একাউন্ট খুলবেন এখানে ক্লিক করে ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন ইউটিউব থেকে এবং এই ভিডিও ডেসক্রিপশন বক্সে রেফার কোড টি পেয়ে যাবেন যেটি ব্যবহার করে অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে পারেন ।


সহায় থেকে পেমেন্ট নেওয়ার মেথর গুলো কি কি জানতে চাই ?


আপনি যদি বাংলাদেশের ভিতরে হয়ে থাকেন তাহলে সহায় প্লাস থেকে বিকাশ নগদ রকেট ও ব্যাংক টেনাসফার এর মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেন মাত্র 500 টাকা হলেই পেমেন্ট নেওয়া যায় । এবং সহায় প্লাস ২ সহায় প্লাস মেম্বার এর কাছে যে কোন পরিমাণ ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার সুবিধা রয়েছে । আপনারা বিষয়টি জানলে অবাক হবেন মাত্র 10 টাকা হলেই যেকোনো মোবাইল কম্পানির সিমে রিচার্জ নিতে পারবেন । এটা হল একটি বিশেষ বাড়তি সুবিধা যেটা আমার কাছে মনে হয়েছে ।


সহায় লিমিটেডে কি ইলেকট্রিক বিল দেওয়া যায় ?


বর্তমান সময়ে লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন টাকা লেনদেন হয় যেই সকল রিয়েল সাইট গুলো রয়েছে তারা সকলেই প্রায় ইলেকট্রনিক বিভিন্ন বিল পরিশোধ করার সুবিধা দিয়ে থাকেন যেমন বলা যায় বিকাশ নগদ অ্যাপ এর কথাই ধরুন এগুলোর মাধ্যমে গ্যাস বিল, বিদ্যুৎ বিল, ডিস বিল, দেওয়া যায় । ঠিক এই ধরনের সুবিধাগুলোও রয়েছে সহায়তে । তবে অন্যান্য জায়গায় যদি আপনে বিদ্যুৎ বিল, গ্যাস বিল, পানির বিল, ডিস বিল, দেন তাহলে বাড়তি ইনকাম হয় না । কিন্তু সহায় এর মাধ্যমে যদি আপনি একই কাজগুলো করেন তাহলে এগুলো থেকেও একটা ইনকাম সহায় একাউন্টে যোগ হয়ে যায় । এখন আপনি এই কোম্পানিতে কাজ করবেন কিনা সবকিছু জেনে বুঝে এটা একমাত্র আপনার সিদ্ধান্তের ওপরই নির্ভর করছে । 


Post a Comment

1 Comments