Ticker

6/recent/ticker-posts

Ads

বিকাশ লোন সিটি ব্যাংকের সহযোগিতায় বিকাশ অ্যাপ থেকে লোন নিণ 500 থেকে 10,000 টাকা পর্যন্ত | Digital Home loan

বিকাশ লোন


কথায় বলে যার ফোড়া তারই নাকি ব্যথা যে সমস্যায় পড়ে আসলে ঐ ব্যক্তি বলতে পারবে যে সমস্যা কত প্রকার ও কি কি মানুষ তো শুধু চেয়ে চেয়ে দেখবে কিংবা মনে মনে হয়ত কেউ কেউ বা আফসোস করবে সমাধান কি আসলে করবে ? বলতে গেলে এই পৃথিবীর বেশিরভাগ মানুষ গুলো নিজের ভালো চাওয়া থেকে অন্যের ক্ষতি দেখার প্রতি আগ্রহ বেশি । (সহজে টাকা পাওয়ার উপায়)

আবার তো পৃথিবীর মানুষগুলোর বিতরে বেশিরভাগ মানুষই রয়েছেন যারা কিনা অন্যের ক্ষতির সময় সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করে সমাধান করবে কি বলেন? আপনার যদি টাকা থাকে তাহলে বেশিরভাগ মানুষ নিজ থেকেই আপনার সাথে সম্পর্ক করবে আর যদি আপনার কাছে টাকা না থাকে তাহলে আস্তে আস্তে করে ফ্যামিলির লোকজন সরে যেতে শুরু করবে । ( টাকা উপার্জন করার সঠিক রাস্তা)

যাদের বয়স 18 থেকে 25 তাদের কাছে এই কথাটা হয়তো বা তেমন একটা গুরুত্বপূর্ণ নাও হতে পারে কিন্তু যাদের বয়স 25 থেকে 30 কিংবা তারও বেশি তাদের কাছে এই কথাটার মূল্য অফুরন্ত কারণ তারা বাস্তবতার সাথে লড়েছে বা এখনও লতাসে । (সৎ পথে টাকা উপার্জন করার উপায়)

যাইহোক অনেক কথাই তো বললাম এখন আসি মূল পয়েন্টে এমন অনেক সময় হয়তো জীবনে আসে যখন 500 টাকা ও অনেক দামি হয়ে যায় তখন 500 টাকার জন্য যদি কোনো বন্ধুর কাছে যাওয়া হয় মুখের উপরে অনেককেই না করে দিয়ে থাকে যদি আপনার ওই সময়টা খারাপ থাকে । ( অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়)

আসলে যার কাছে টাকা নেই তার কাছে বলতে গেলে কিছুই নেই টাকা যার কাছে নেই তার কাছে কোনো মানুষ তেমন একটা আসেনা আসলেও পাত্তা দেয় না আর গার্লফ্রেন্ড তো আসবে না বিয়া তো জীবনে করতে পারবেন না । (টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট)

আল্লায় দিলে জানি অনেকে হয়তো বা লেখাটি পড়ে মিচকি মিচকি হাসতাছেন যে এটা ভাইয়া কি বলতেছে আসলে এই কথাগুলো কিন্তু বাস্তবতার সাথে বলতেছি বাস্তবতা নিয়ে । এটি কিন্তু অবস্তব নয় জীবনে চলার ক্ষেত্রে কোন না কোন সময় হয়তো বা এরকম সমস্যায় পড়তে পারেন তাই এখনি সমাধান খুঁজুন । (মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায়)

জীবনে চলতে চলতে এমন একটা সময় আল্লায় দিলে এসে গেল তখন আপনার হয়তো বা পাঁচশ পাঁচ হাজার কিংবা 10 হাজার টাকা আপনার প্রয়োজন হয়ে গেল কিন্তু মানুষ তো আর এমনি এমনি টাকা দেয় না । যদি দেখা গেল যার কাছে টাকা চাইলেন অনেক আপন জন কিন্তু মুখের উপরে না করে দিলে তখন তো দেখা গেল একটা লজ্জার বিষয় হয়ে দাঁড়াতে পারে । ( অনলাইন থেকে টাকা লোন নেওয়ার উপায়)

কিন্তু আপনার হাতে যদি একটি স্মার্টফোন থাকে সাথে যদি ইন্টারনেট কানেকশন জুড়ে দেওয়া হয় তাহলে আপনি যেকোনো সময় টাকা লোন নিতে পারবেন ঘরে বসে তবে এ ক্ষেত্রে রয়েছে কিছুটা নিয়ম আসলে একবারে নিঃস্ব মানুষের এই পৃথিবীতে কিছু হয় না । (মোবাইল দিয়ে লোন নেওয়ার উপায়)

সোজা বাংলায় বলতে গেলে একেবারে নিঃস্ব মানুষের জন্য রয়েছে ভিক্ষা যেটা বেশিরভাগ মানুষ দিতে চায় না দিলেও কোনডে একটা একটাকা আটানা রয়েছে সেগুলো দেওয়ার চেষ্টা করে । এখন আপনার হাতে স্মার্টফোন থাকলে আর যদি সেই স্মার্টফোনে বিকাশ অ্যাপ্লিকেশন থাকে তাহলে মিলবে ঘরে বসে লোন পাওয়ার সুযোগ । (বিকাশ অ্যাপ থেকে লোন পাওয়ার উপায়)

পৃথিবীর অনেক দেশেই এসিস্টেন্ট রয়েছে অর্থাৎ ডিজিটালভাবে লোন নেওয়ার কার্যক্রম চালু হয়েছে বহু আগে থেকেই যদিও আমাদের দেশে তেমন একটা প্রচলিত হয়নি এ বিষয়টা তবে আড়ালে থেকে কিছু অ্যাপ্লিকেশন লোন দিয়ে থাকে অনলাইন অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে কিন্তু তাদের সুদের হার অনেক বেশি 1000 টাকা লোন নিলে দেখা যায় 300 টাকা সুদ দিতে হয় তাও আবার এক সপ্তার জন্য তো বুঝতেই পারতেছেন তাদের থেকে লোন নেওয়া আর নিজের ক্ষতি নিজে করা । (লোন নেওয়ার অ্যাপ্লিকেশন)

এখন কথা হচ্ছে বিকাশ থেকে লোন নিলে কি এরকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে কখোনই না বিকাশ থেকে লোন নিলে অতি সহজে এবং অল্প সুদে লোন নেওয়া যাবে মোবাইল দিয়ে কিংবা ল্যাপটপ কম্পিউটার দিয়ে । যদি আপনার মোবাইল এর পাশাপাশি ল্যাপটপ কম্পিউটারে ও বিকাশ অ্যাপ্লিকেশনটি থাকে । (বিকাশ লোন)



সিটি ব্যাংকের সহযোগিতায় বিকাশ অ্যাপ থেকে লোন নিণ 500 থেকে 10,000 টাকা পর্যন্ত | Digital Home loan



বিকাশ লোন কি?


লোন শব্দের অর্থ কি সেটা আপনারা বিভিন্ন বাড়িগুলোর থেকেই শুনেছেন হয়তো ছোটবেলা থেকেই কারণ অনেক এনজিও কোম্পানিগুলোই এতদিন লোন দিয়ে আসছিল বিভিন্ন মানুষদেরকে । এখন আল্লায় দিলে দিন বদলেছে এখন ডিজিটাল ভাবেও হোম লোন নেওয়া যাচ্ছে তাও আবার বিনা জামানতে তো বুঝতেই পারতেছেন এখান থেকে লোন নেওয়া টা কতটা সহজ । কিন্তু সবাই পাবেনা । 

এখন আবার অনেকে বলতে পারেন যে ভাই এতক্ষণ তো ভালোই বললেন এখন আবার বলেন সবাই পাবে না এটা কেন ওই যে বললাম যে কথায় বলে বেশি ছোট হলে ছাগলে খেয়ে ফেলে বেশি বড় হলে বাতাসে ভেঙ্গে যায় এজন্য মেদিয়াম থাকতে হয় আর এই মেদিয়াম লোকদের জন্যই আসলে বিকাশের এই লোন ব্যবস্থা ।


আপনি যদি বিকাশ অ্যাপ্লিকেশনটি চালিয়ে থাকেন যেটি একাউন্ট খোলার সময় এনআইডি কার্ড দিয়ে একাউন্ট খুলতে হয় যদি আপনার ভেরিফাই একটি বিকাশ একাউন্ট থাকে তাহলেই কেবল মিলবে এই লোন তবে সে ক্ষেত্রে কিছু শর্ত রয়েছে ।


আমি কি বিকাশ লোন পাবো?


সিটি ব্যাংকের সহযোগিতায় বিকাশের মাধ্যমে লোন নেওয়া যাচ্ছে এই খবরটি ইতিপূর্বে অনেকেই জানেন কিন্তু লোন নেওয়ার যে বাটনটি রয়েছে অর্থাৎ লোন এপ্লাই করতে হলে তো আপনাকে একটি বাটনের মাধ্যমে করতে হবে তাই না বা একটি অপশনের মাধ্যমে করতে হবে সেটি কিন্তু সবার বিকাশ অ্যাপ্লিকেশনটির ভিতর পাওয়া যাচ্ছে না ।

কেন অপশনটি পাওয়া যাচ্ছে না এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর হচ্ছে যদি আপনি বিকাশ অ্যাপ্লিকেশনটি দিয়ে মোটামুটি ভালো পরিমাণে মাসে লেনদেন করে থাকেন তাহলে কেবল মিলবে এই সুযোগটি আর যদি আপনি বিকাশ এপ্লিকেশন আছে ঠিকই আপনার কিন্তু লেনদেন তেমন একটা করেন না তাহলে এই সুবিধাটি আপাতত পাওয়া যাবে না ।


কত টাকা বিকাশ লোন নেওয়া যাবে?


বর্তমানে বিকাশের রুলস অনুযায়ী একজন গ্রাহক বিকাশ অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে সর্বনিম্ন 500 টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ 10 হাজার টাকা পর্যন্ত নিতে পারবে এবং সর্বোচ্চ মেয়াদ বিবেচিত হবে 90 দিন অর্থাৎ তিন মাস পর্যন্ত । তবে টাকার অনুযায়ী মেয়াদ কম বেশি হবে ।

বিকাশের এই লোন দেওয়ার সিস্টেম টি এখন পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে পরীক্ষামূলকভাবে চলতাছে পরবর্তীতে এটি কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে তাদের কৌশল ।


বিকাশ দিয়ে লোন নিয়ে যদি না দেই?


এই প্রশ্নটা অনেকের মাথায় ঘুরপাক খেতে পারে এটা কিন্তু অতি স্বাভাবিক কারণ দুষ্টু লোকের দুষ্ট বুদ্ধি এটা অনেকেই বলে থাকেন । আপনি যদি ভেবে থাকেন যে বিকাশ থেকে টাকা লোন নেবো পরে আর পরিশোধ করব না তাহলে আপনি বোকার সাথে বাস করতেছেন এটা 100% গ্যারান্টি সহকারে বলা যায় ।

আগেই আমি আর্টিকেলে শুরুতে বলেছিলাম বিকাশ তাদেরকেই লোন দেবে যাদের বিকাশ একটি ভেরিফাই একাউন্ট রয়েছে আপনি যদি একটি বিকাশ একাউন্ট খুলতে চান অবশ্যই ন্যাশনাল আইডি কার্ড অনুযায়ী খুলতে হবে বা ভেরিফাই করতে হবে আর এটি করতে গেলে বিকাশের কাছে সকল তথ্য চলে যাবে এবার বলেন বিকাশ কি পদক্ষেপ নিতে পারবে প্রশ্নটা আপনাদের কাছে রয়ে গেল? আশা করি উত্তরটা আপনারা এই কমেন্ট বক্সে জানিয়ে দিবেন ।


বিকাশ লোন কিভাবে পরিশোধ করব?


যেহেতু লোনটি সরাসরি বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে নিতে হবে আর বিকাশ কোম্পানি যেহেতু এটি নিয়ন্ত্রণ করবে অর্থাৎ পরিচালনা করবে সেহেতু আপনাদের অন্য জায়গায় যাওয়ার দরকার কি বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে দেওয়া যাবে এই লোন পরিশোধের টাকা । 

যে পরিমাণে আপনি লোনের টাকা নেবেন ঠিক ওই পরিমাণের সাথে ইন্টারেস্ট সহ আপনাকে কিস্তি অনুযায়ী প্রতি মাসে এটি পরিশোধ করতে হবে যদি পরিশোধ করতে ব্যর্থ হন তাহলে জরিমানা গুনতে হবে ।


বিকাশ লোন কি সরকার অনুমোদিত?


বিকাশ পরিচালিত হয় মূলত ব্র্যাক ব্যাংকের অধীনে যদিও বিকাশের আর ও বিদেশী অনেক বিনিয়োগ রয়েছে যাই হোক এটি কিন্তু সরকার অনুমোদিত ভাবে চলতাছে অর্থাৎ বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নিয়ে চলতাছে যতগুলো বেসরকারি ব্যাংক রয়েছে কিংবা মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস গুলো রয়েছে ।

সে দিক দিয়ে বিবেচনা করলে বুঝতে পারতাছেন আসলে বিকাশের এই সার্ভিসটি সরকারের অনুমোদন ছাড়া দেওয়ার কোন সুযোগ নেই কারণ সরকারের গাইডলাইন মেনে তাদের বিজনেস পরিচালনা করতে হয় । 

এছাড়াও আপনারা লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন এখন বাংলাদেশে প্রায় অনেক ব্যাংকগুলোই কিন্তু হোম লোন দেওয়ার পক্ষে কিংবা সার্ভিস অলরেডি দেওয়া শুরু করেছে অনেক ব্যাংক । 

এরপরও যদি এই বিষয়ে আপনার কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই থাট পার্টির কাছে গিয়ে প্রতারিত না হয়ে সরাসরি বিকাশ কাস্টমার কেয়ারে ফোন দিতে পারেন বিকাশ কাস্টমার কেয়ার নাম্বার 16247 ।


সর্বশেষ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা এখান থেকে আপনারা লোন নিতে পারবেন নিয়ম মেনে এটি কিন্তু সত্য কথা এতে কোন সন্দেহ নেই । তবে লোন নিলে কিন্তু সব সমস্যার সমাধান নয় জীবনের । আল্লায় দিলে এমন কিছু করুন সৎ পথে থেকে যাতে অন্যের কাছে হাত পাততে না হয় আল্লাহপাকের দোয়ায় ও রাসুলের উসিলায় সর্বোত্তম সমাধান এটি ইনশাল্লাহ ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ